Skip to content

Sukanta Majumdar | তৃণমূলের নতুন নাটক ‘ভাই কেন পর’, মালদায় এসে কটাক্ষ সুকান্ত মজুমদারের

Sukanta Majumdar | তৃণমূলের নতুন নাটক ‘ভাই কেন পর’, মালদায় এসে কটাক্ষ সুকান্ত মজুমদারের

হবিবপুরঃ লোকসভা ভোটের (Lok Sabha Election 2024) আগে আদিবাসী ভোটের লক্ষ্যে উদ্যোগী বিজেপি। বুধবার হবিবপুরের কেন্দপুকুরে আদিবাসীদের প্রাণের মানুষ বীর জিতু সাঁওতালের মূর্তি প্রতিষ্ঠা করা হল। এদিনের ওই অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন ঝাড়খণ্ডের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী বাবুলাল মারান্ডি, বিজেপির রাজ্য সভাপতি সুকান্ত মজুমদার, উত্তর মালদার বিজেপি প্রার্থী তথা সংসদ খগেন মুর্মু, হবিবপুরের বিধায়ক জুয়েল মুর্মু প্রমুখ।

এদিনের সভায় বক্তব্য রাখতে গিয়ে মুখ্যমন্ত্রীর ভাইয়ের সঙ্গে সম্পর্ক নিয়ে তীব্র কটাক্ষ করেন সুকান্ত মজুমদার। তাঁর কটাক্ষ, ‘কালীঘাটের মা, মাটি, মানুষের দলের নতুন নাটক ভাই কেন পর। তাতে অনেক শিল্পীরা রয়েছেন। এরকম নাটক দেখতে দেখতে মানুষ ক্লান্ত হয়ে গিয়েছে। নির্বাচনের মুখে এখন পরিবারতন্ত্রকে সামনে রেখেই রাজনীতি করতে চাইছেন উনি।’

এদিন আদিবাসীদের এই অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়েই জিতু হেমরমের মূর্তি উন্মোচন করা হয়। আর এই কর্মসূচির শেষে সাংবাদিকদের সরাসরি প্রশ্নের উত্তরে তৃণমূলকে তুলোধোনা করে বিজেপির রাজ্য সভাপতি সুকান্ত মজুমদার বলেন, ‘আর কত নাটক মানুষ দেখবে? মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের নির্দেশনায় নতুন নাটক, ‘ভাই কেন পর’ শুরু হয়েছে। তাতে সায়নী ঘোষ, রচনা বন্দ্যোপাধ্যায়, দেবের মতো অভিনেতা, অভিনেত্রীরাও রয়েছেন। এটা নতুন কিছু নয়, আসলে নির্বাচনে রাজনীতি করতে সবরকম রণকৌশল নিয়েছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।’

অর্জুন সিং প্রসঙ্গে প্রশ্নের উত্তরে বিজেপির রাজ্য সভাপতির কটাক্ষ, ‘লোকসভা নির্বাচনের টিকিট তিনি পাননি। কেন পাননি সেটা বলতে পারব না।  উনি সবসময় তৃণমূলের ছিলেন। আসলে, আপন হয়ে গেল পর। এখন ক্ষোভ নিয়ে আসল কাজটা করতে হবে। প্রধান লক্ষ্য তৃণমূলের এই সরকারকে পালটাতে হবে। তবে অনেক কিছু এখনও বাকি আছে। তৃণমূলের থেকে যাঁরা অসম্মানিত হয়েছেন, যোগ্য মর্যাদা পাননি, তাঁদের জন্য আইআরসিটিসির মাধ্যমে ট্রেনের টিকিট বুকিংয়ের রাস্তা সবসময় খোলা আছে। অনেক কিছুই দেখতে পাবে মানুষ।’

উল্লেখ্য, দক্ষিণ মালদার তৃণমূল প্রার্থী শাহনওয়াজ আলি রায়হানকে এক্স হ্যান্ডেলে কটাক্ষ করেন বিজেপি নেতা অমিত মালব্য। তিনি তৃণমূল প্রার্থীকে সন্ত্রাসবাদী আখ্যা দিয়ে টুইট করেন। সেই প্রেক্ষিতে শাহনওয়াজ আলি নিজেকে আহত বাঘ আখ্যা দিয়ে বিজেপির বিরুদ্ধে লড়াইয়ের কথা ঘোষণা করেন। তৃণমূল প্রার্থীর এই মন্তব্যের উত্তরে বিজেপি রাজ্য সভাপতি বলেন, ‘আমরা অনেক বাঘকে দেখলাম। এর আগে অনুব্রত বাঘ ছিল, সে এখন ছাগ হয়ে গিয়েছে। এরকম অনেকেই রয়েছে, যারা মুখে বড় বড় কথা বলে। তবে দক্ষিণ মালদার প্রার্থী বাঘ না বাঘরোল সে তো নির্বাচনের সময় দেখা যাবে। বিজেপি যেটা বলেছে সঠিক তথ্য জেনেই বলেছে। এখন নিজের বেগতিক অবস্থা ঠেকাতেই বেসামাল হয়েই উলটো-পালটা বলছেন তৃণমূল প্রার্থী।’ এদিন হবিবপুরের কেন্দপুকুরে এই কর্মসূচির পর ঝাড়খণ্ডের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রীর উপস্থিতিতে একটি র‍্যালি এলাকা পরিদর্শন করে।

বার্তা সূত্র