Skip to content

Ram Mandir: ‘ভোট ব্যাঙ্কের ভয়ে মমতা রাম মন্দির উদ্বোধনে যাননি’, তোপ শাহর

Amit-And-Mamata

‘৭০ বছর ধরে রাম মন্দির (Ram Mandir) নিয়ে জটিলতা ছিল। মোদীজি (Narendra Modi) ক্ষমতায় এসে রাম মন্দির মামলা জিতেছেন, ভূমি পুজো করেছেন এবং রামলালার প্রাণ…

‘৭০ বছর ধরে রাম মন্দির (Ram Mandir) নিয়ে জটিলতা ছিল। মোদীজি (Narendra Modi) ক্ষমতায় এসে রাম মন্দির মামলা জিতেছেন, ভূমি পুজো করেছেন এবং রামলালার প্রাণ প্রতিষ্ঠাও করেছেন। সেই অনুষ্ঠানে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (Mamata Banerjee) এবং তাঁর ভাইপো অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়কে আমন্ত্রণ জানানো হয়েছিল। কিন্তু ভোট ব্যাঙ্কের ভয়ে মমতা দিদি রামলালার প্রাণ প্রতিষ্ঠা অনুষ্ঠানে যাননি।’ দুর্গাপুরের সভা থেকে এভাবেই মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে আক্রমণ করলেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রী অমিত শাহ।

সিএএ ইস্যুতেও এদিন মমতাকে নিশানা করেন শাহ। তিনি বলেন, হিন্দু ভাইদের নাগরিকত্ব দেওয়ার জন্য সিএএ আনা হয়েছে। মমতা দিদি আপনার লজ্জা হওয়া উচিত, আপনি ভোটব্যাঙ্কের জন্য নাগরিকত্ব বিলের বিরোধিতা করছেন। আমরা হিন্দু ভাইদের নাগরিকত্ব দেবই।

প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী দেশের মানুষের জন্য কী কী করেছেন, সেই খতিয়ান তুলে ধরেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী। তিনি বলেন, ১২ কোটি মানুষের বাড়িতে শৌচালয় তৈরি করে দিয়েছেন মোদীজি। একই সঙ্গে ৪ কোটি মানুষকে পাকা ঘর করে দেওয়া হয়েছে। ১৪ কোটি লোকেদের বিনামূল্যে জল দেওয়া হচ্ছে। ১০ কোটি লোক বিনামূল্যে সিলিন্ডার পেয়েছে। দিদি নয়, ৮০ কোটি মানুষকে বিনামূল্যে চাল দিচ্ছেন মোদীজি।

বাংলায় শিল্পস্থাপন নিয়েও বিরাট ঘোষণা করেন শাহ। তিনি বলেন, শিল্প শহর ছিল বর্ধমান-দুর্গাপুর। কিন্তু তৃণমূলের কাটমানি আর সিন্ডিকেট রাজের জন্য সমস্ত শিল্প বন্ধ হয়ে গিয়েছে। আজ আমি মোদীজির এক গ্যারান্টি আপনাদের দিয়ে যাচ্ছি। দিলীপ ঘোষকে জেতান, দুর্গাপুর-বর্ধমানের বন্ধ হওয়া সমস্ত কলকারখানাগুলোকে আবার খুলে দেওয়া হবে।

সন্দেশখালি ইস্যুতেও এদিন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে ফের একবার আক্রমণ করেন শাহ। কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর কথায়, মমতা দিদি আপনার লজ্জা হওয়া উচিত, আপনার নাকের ডগায় সন্দেশখালিতে ধর্মের ভিত্তিতে মা-বোনদের ধর্ষণ করা হয়েছে। ভোটব্যাঙ্কের জন্য বাংলার সংস্কৃতি ও ঐতিহ্যকে নিয়ে ছেলেখেলা করা মমতা ব্যানার্জিকে জবাব দেওয়ার জন্য তৈরি বাংলার মানুষ।

বর্ধমান-দুর্গাপুর আসনে ভোট আগামী ১৩ মে। প্রসঙ্গত, দেশজুড়ে এবার সাত দফায় লোকসভা নির্বাচন হচ্ছে। ১৯ এপ্রিল এবং ২৬ এপ্রিল, দু’দফার ভোট ইতিমধ্যেই সমাপ্ত হয়েছে। তৃতীয় ধাপে ৭ মে, চতুর্থ ধাপে ১৩ মে, পঞ্চম ধাপে ২০ মে, ষষ্ঠ ধাপে ২৫ মে এবং সপ্তম ধাপে ১ জুন ভোটগ্রহণ হবে। নির্বাচন প্রক্রিয়া চলবে মোট ৪৩ দিন। আগামী ৪ জুন ভোটের ফলাফল ঘোষণা করা হবে।



সংবাদ সূত্র