Skip to content

Rajasthan Crisis | রাজস্থান কংগ্রেসে আবার ডামাডোল, গহলৌত এবং পাইলটের সংঘাত নিয়ে খোঁচা দিল বিজেপি

সমকামিতা থেকে মোদী সরকারের সমালোচনা! বিচারপতি নিয়োগে বাগড়া দিতে নানা অছিলা কেন্দ্রের?

চলতি বছরের শেষেই বিধানসভা নির্বাচন। কিন্তু রাজস্থানে কংগ্রেসের গোষ্ঠীদ্বন্দ্ব মেটার ইঙ্গিত নেই। বরং মুখ্যমন্ত্রী অশোক গহলৌত এবং তাঁর প্রতিদ্বন্দ্বী সচিন পাইলট ধারাবাহিক ভাবে পরস্পরকে নিশানা করে চলেছেন। যা নিয়ে এ বার প্রশ্ন তুলেছে মরুরাজ্যের প্রধান বিরোধী দল বিজেপি।

Advertisement

কেন্দ্রীয় মন্ত্রী তথা রাজস্থানের বিজেপি নেতা গজেন্দ্র সিংহ শেখাওয়াত শনিবার বলেন, ‘‘রাজ্যের প্রাক্তন উপমুখ্যমন্ত্রী এবং প্রথম সারির নেতা সরকারের কার্যকলাপ এবং দল পরিচালনা নিয়ে প্রশ্ন তুলছেন। রাজ্যে জনগণ কী পরিস্থিতিতে রয়েছেন, এর থেকেই তা স্পষ্ট।’’ বিজেপির আর এক নেতা শেহজাদ পুনেওয়ালা একটি ভিডিয়ো-বার্তায় মন্তব্য করছেন, ‘‘রাহুল গান্ধীর উচিত ভারত জোড়ো যাত্রার আগে তাঁর দলের নেতাদের একজোট করার চেষ্টা করা।’’

প্রসঙ্গত, ডিসেম্বরে রাজস্থানে ভারত জোড়ো যাত্রার সময় রাহুলের সামনেই পাইলটকে মুখ্যমন্ত্রী করার দাবিতে স্লোগান উঠেছিল। এর পরেই নতুন করে দু’গোষ্ঠীর সংঘাত শুরু হয়। বৃহস্পতিবার পাইলট প্রশ্ন তোলেন, বিজেপির বসুন্ধরা রাজে সরকারের দুর্নীতির বিরুদ্ধে ভোট দিয়ে রাজস্থানের মানুষ কংগ্রেসকে সরকারে এনেছিল। তা হলে গত চার বছরে সেই দুর্নীতির বিরুদ্ধে পদক্ষেপ হল না কেন? এর পর গহলৌত বলেন, ‘‘দেশে করোনার পরে কংগ্রেস দলেও করোনা ঢুকে পড়েছে।’’

গহলৌতের সঙ্গে কখনওই সুসম্পর্ক ছিল না ‘উদীয়মান নেতা’ সচিনের। মূলত মরুরাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী কে হবেন, তা নিয়েই দুই নেতার বিরোধের সূত্রপাত। ২০২০ সালে জুলাইয়ে গহলৌতের বিরুদ্ধে বিদ্রোহ করে প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি এবং উপমুখ্যমন্ত্রী পদ হারিয়েছিলেন সচিন, কিছু দিন আগেই একটি সং‌বাদমাধ্যমে সচিনকে ‘গদ্দার’ বলেছিলেন গহলৌত।

Advertisement

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের
Google News,
Twitter এবং
Instagram পেজ)



বার্তা সূত্র