Skip to content

Jammu & Kashmir: বরফ-ঢাকা এলাকায় পর্যটকদের নিয়ে পৌঁছে যাবে হেলিকপ্টার, শীতের পর্যটনে নতুন চমক ভূস্বর্গে

Jammu & Kashmir: বরফ-ঢাকা এলাকায় পর্যটকদের নিয়ে পৌঁছে যাবে হেলিকপ্টার, শীতের পর্যটনে নতুন চমক ভূস্বর্গে

Winter Tourism in Kashmir: শীতে তুষারপাত এবং বরফে ঢাকা ভূস্বর্গকে দেখতে দেশ, বিদেশের বহু পর্যটক ভিড় করেন কাশ্মীরে। পর্যটনকে চাঙ্গা করতে নতুন উদ্যোগ নিচ্ছে সরকার।

কাশ্মীরি পণ্ডিতকে খুন, ঘন ঘন নেট পরিষেবা বন্ধ—এসব নিয়ে বেশ কিছুদিন ধরে শিরোনামে রয়েছে জম্মু ও কাশ্মীর। তবে, আরও একটি কারণে কয়েকদিন ধরে শিরোনামে উঠে আসছে উপত্যকা। তা হল ভূস্বর্গের পর্যটন। চলতি মাসের কাশ্মীর পর্যটন বিভাগের তরফে জানানো হয়েছিল, স্বাধীনতার পর থেকে ২০২২-এ সর্বোচ্চ পর্যটক উপত্যকায় এসেছেন। চলতি বছরে এখনও অবধি ১ কোটি ৬২ লক্ষ পর্যটক কাশ্মীরের সৌন্দর্য উপভোগ করেছেন। কাশ্মীরে পর্যটক টানতে আরও একটু নতুন উদ্যোগ নিল কাশ্মীরের পর্যটন বিভাগ। উত্তর কাশ্মীরের গুলমার্গে স্কিইং ছাড়াও অন্যান্য অ্যাডভেঞ্চার স্পোর্টসের ব্যবস্থা করতে চলেছে জম্মু ও কাশ্মীর সরকার। কাশ্মীরের শীতকালীন পর্যটনকে চাঙ্গা করতেই এই উদ্যোগ দেওয়া হচ্ছে।

শীতে তুষারপাত এবং বরফে ঢাকা ভূস্বর্গকে দেখতে দেশ, বিদেশের বহু পর্যটক ভিড় করেন কাশ্মীরে। শীতকালে বেশিরভাগ মানুষ উত্তর কাশ্মীরের গুলমার্গকে বেছে নেন পর্যটন কেন্দ্র হিসেবে। গুলমার্গ শীতের হট স্পট। এখানে স্কিইং, জেট স্কিইং, গোনডোলা রাইডের মতো অ্যাডভেঞ্চার স্পোর্টসের সুবিধা রয়েছে। এবার বেড়াতে গেলে উপত্যকার অন্যান্য এলাকায় পাওয়া যাবে হেলিকপ্টারের চড়ে ভূস্বর্গ দেখার সুবিধা। বিশেষত যে সব জায়গা বরফে ঢাকা থাকে এবং সড়কপথে যাওয়ার সম্ভব হয় না সেখানে পাওয়া যাবে হেলিকপ্টার পরিষেবা।

তাছাড়া, পর্যটকদের সবসময় প্রলুব্ধ করেছে উপত্যকার সেই সব অঞ্চল যেখানে যাওয়ার জন্য বিশেষ অনুমতির প্রয়োজন কিংবা যেখানে পৌঁছানো একটু কঠিন। বান্দিপোরা এবং কুপওয়ারা জেলার গুরেজ এবং কর্নার মতো জায়গাগুলো নিয়ন্ত্রণ রেখা (এলওসি)-এর কাছে অবস্থিত। তাই এখানে অনেক পর্যটকই ইচ্ছা থাকা সত্ত্বেও যেতে পারেন না। কিন্তু এবার এই সব জায়গায় ভ্রমণ সম্ভব হবে। উপত্যকার এই ধরনের স্থানে ভ্রমণের জন্য বিশেষ হেলিকপ্টার পরিষেবা চালু করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার।

এই খবরটিও পড়ুন



এখানেই শেষ নয়। এই বছর শীতে কাশ্মীর বেড়াতে গেলে মিলবে আরও চমক। ৭০ বছরে প্রথমবার শীতে পর্যটকদের জন্য খোলা থাকবে সোনামার্গ, কর্না এবং গুরেজ। এই সব অঞ্চল যাতে পর্যটকদের নজর কাড়ে তাই এখানে অ্যাডভেঞ্চার স্পোর্টস চালুরও পরিকল্পনা করা হচ্ছে। বরফ-ঢাকা এলাকায় নতুন স্কি ঢাল তৈরি করা হবে। এতে পর্যটকদের সংখ্যা বাড়বে বলে আশা করা হচ্ছে।

বার্তা সূত্র