Jan 242020
 
  • 1
  •  
  •  
  •  
  •  
    1
    Share

 

বলিউড চলচ্চিত্র ছপাকে অ্যাসিড দগ্ধ নারী লক্ষ্মী আগরওয়ালের জীবন সংগ্রাম পর্দায় নিখুঁতভাবে ফুটিয়ে তুলে দীপিকা পাডুকোন অনবদ্য অভিনয় ক্ষমতায় সব দর্শককে কাঁদিয়েছে। এরই মধ্যে ব্যাপক আলোচিত এ ছবিটি দ্বিতীয় সপ্তাহে পা রেখেছে। ১৩তম দিনে পা রাখলেও সেই অর্থে তেমন ব্যবসা করতে সক্ষম হয়নি। খবর এনডিটিভির।

যত দিন যাচ্ছে ‘ছপাক’-এর ব্যবসার গতি যেন ততই মন্দা হচ্ছে। এখন পর্যন্ত ছবিটি সব মিলিয়ে ৪০ কোটির ব্যবসা করতে পারেনি। গত বুধবার ৯০ লাখ রুপি ব্যবসা করেছে। যার ফলে সব মিলিয়ে ‘ছপাক’-এর ঝুলিতে ঢুকেছে ৩৫ কোটি ৯০ লাখ রুপি।

চলচ্চিত্র সমালোচকরা বলছেন, উপার্জনের দিক দিয়ে ‘ছপাক’ ক্রমাগত হতাশ করছে। প্রথম সপ্তাহ থেকেই দীপিকা অভিনীত আশা অনুসারে ফল করতে অসমর্থ হয়েছে। বিদেশের বাজারেও সেই অর্থে সাড়া ফেলতে পারেনি ‘ছপাক’। এখন পর্যন্ত বিদেশের বাজারে ছবিটির উপার্জনের পরিমাণ ১৩ কোটি।

গত ১০ জানুয়ারি বিগস্ক্রিনে রিলিজ করে মেঘনা গুলজারের ছবি ‘ছপাক’। বাস্তবে অ্যাসিড আক্রান্ত লক্ষ্মী আগরওয়ালের চরিত্রে পর্দায় অভিনয় করেছেন দীপিকা পাডুকোন। ছবিতে তার চরিত্রের নাম মালতি। এতে গুরুত্বপূর্ণ চরিত্রে রয়েছেন অভিনেতা বিক্রান্ত মাসে। চোখ ধাঁধানো মেকআপের বদলে অ্যাসিডে ঝলসানো তামাটে চামড়াতেই এবার পর্দায় দেখা গিয়েছে দীপিকা পাডুকোনকে।

ছবি রিলিজের আগেই অভিনেত্রী জানিয়েছিলেন, এই সিনেমা তার মনে ভীষণ দাগ কেটেছে। পরিচালক মেঘনা গুলজারের থেকে স্ক্রিপ্ট শোনার পর তাই সম্মতি জানাতে বিন্দুমাত্র সময় নেননি দীপিকা। আর সিনেমা দেখার পর দর্শকরা অনেকেই বলছেন, এখন পর্যন্ত নিজের সেরা অভিনয়টা নাকি এই ছবিতেই করেছেন দীপিকা।


  • 1
  •  
  •  
  •  
  •  
    1
    Share

 Leave a Reply

(required)

(required)