Skip to content

৯ বছর পর ডিসেম্বরে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের ৫ম সমাবর্তন

৯ বছর পর ডিসেম্বরে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের ৫ম সমাবর্তন

১৯৬৬ সালের ১৮ নভেম্বর প্রতিষ্ঠিত হয় দেশের স্বায়ত্তশাসিত উচ্চশিক্ষা প্রতিষ্ঠান চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় (চবি)। প্রতিষ্ঠার ৫৭ বছর পর চবিতে সমাবর্তন হয়েছে মাত্র চারবার। সর্বশেষ সমাবর্তন অনুষ্ঠিত হয়েছিল ৮ বছরের বেশি সময় আগে ২০১৬ সালের ৩১ জানুয়ারি।

দেশের অনেক বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ও নিয়মিত সমাবর্তন আয়োজন করে চলেছে। সেখানে চবিতে গড়ে ১৪ বছরে একবার সমাবর্তন হচ্ছে। এদিকে, ৯ বছর পর আগামী ডিসেম্বরে চবির ৫ম সমাবর্তনের সম্ভাব্য তারিখ নির্ধারণ করা হয়েছে।

রাষ্ট্রপতি ও বিশ্ববিদ্যালয়টির চ্যান্সেলর মো. সাহাবুদ্দিন ৫ম সমাবর্তনের জন্য চলতি বছরের ৮ ডিসেম্বর সম্ভাব্য তারিখ নির্ধারণ করেছেন। মঙ্গলবার (১৬ এপ্রিল) ডেপুটি রেজিস্ট্রার (তথ্য ও ফটোগ্রাফি) খন্দকার মোয়াজ্জেম হোসেন স্বাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তিতে বিষয়টি জানানো হয়। 

জানা যায়, মঙ্গলবার রাষ্ট্রপতি ও চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের চ্যান্সেলর মো. সাহাবুদ্দিনের সাথে চট্টগ্রাম ভিসি প্রফেসর ড. মো, আবু তাহের বঙ্গবভনে ঈদ পরবর্তী শুভেচ্ছা বিনিময় এবং সৌজন্য সাক্ষাৎ করেন। 

সাক্ষাৎকালে ভিসি চ্যান্সেলর মো. সাহাবুদ্দিনকে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় পরিবারের পক্ষ থেকে পবিত্র ঈদুল ফিতর ও বাংলা নববর্ষের শুভেচ্ছা জানান এবং একাডেমিকসহ সার্বিক কার্যক্রম সম্পর্কে অবহিত করেন।  

এ সময় ভিসি বিশ্ববিদ্যালয়ের ৫ম সমাবর্তন অনুষ্ঠান আয়োজনের প্রস্তাব করলে তিনি সম্ভাব্য তারিখ হিসেবে আগামী ৮ ডিসেম্বর নির্ধারণ করেছেন। 

জানা গেছে, চবিতে এ পর্যন্ত চারবার সমাবর্তন অনুষ্ঠিত হয়েছে। সর্বশেষ সমাবর্তন অনুষ্ঠিত হয়েছিল ৮ বছরের বেশি সময় আগে ২০১৬ সালের ৩১ জানুয়ারি। এতে ২০০৪ সাল থেকে ২০১০ সাল পর্যন্ত স্নাতক ও স্নাতকোত্তর এবং ২০০৮ সাল থেকে ২০১৩ সাল পর্যন্ত পিএইচডি-এমফিলসহ বিভিন্ন পরীক্ষায় উত্তীর্ণরা অংশ নেয়। রাষ্ট্রপতি ও আচার্য আব্দুল হামিদের সভাপতিত্বে ও সাত হাজার ১৯৪ শিক্ষার্থীর অংশগ্রহণে এটিই ছিল চবির সবচেয়ে বড় সমাবর্তন।

এর আগে তৃতীয় সমাবর্তন হয় তারও আট বছর আগে ২০০৮ সালে। প্রথম সমাবর্তন হয় প্রতিষ্ঠার প্রায় ২৮ বছর পর ১৯৯৪ সালে এবং দ্বিতীয়বার সমাবর্তন হয় আরও পাঁচ বছর পর ১৯৯৯ সালে।



বার্তা সূত্র