স্বাস্থ্যমন্ত্রীঃ উচ্চ সংক্রমণশীল ভ্যারিয়েণ্ট ঢাকার কাছাকাছি চলে এসেছে

স্বাস্থ্যমন্ত্রীঃ উচ্চ সংক্রমণশীল ভ্যারিয়েণ্ট ঢাকার কাছাকাছি চলে এসেছে

প্রাণঘাতী করোনা ভাইরাসের উচ্চ সংক্রমণশিল ভ্যারিয়েণ্ট বাংলাদেশের পশ্চিমাঞ্চলের সীমান্ত জেলা সমূহের পরিধি ছাড়িয়ে রাজধানী ঢাকার কাছাকাছি চলে এসেছে বলে জানিয়েছেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী ডা. জাহিদ মালেক।

বুধবার ঢাকায় এক সংবাদ সম্মেলনে স্বাস্থ্যমন্ত্রী এমন তথ্য জানিয়ে করোনার থাবা থেকে বাঁচার জন্য ঢাকাবাসীসহ সমগ্র দেশবাসীকে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার আহ্বান জানিয়েছেন।

দেশে করোনা পরিস্থিতির কাঙ্ক্ষিত উন্নতি না হওয়ায় সংক্রমণ মোকাবেলায় চলতি বিধিনিষেধের মেয়াদ আগামী ১৫ই জুলাই পর্যন্ত বাড়ানো হয়েছে।মন্ত্রীপরিষদ বিভাগ আজ এক প্রজ্ঞাপন জারি করে এই সিদ্ধান্ত জানিয়েছে। এর আগে গত ১৪ই এপ্রিল থেকে মানুষের চলাচলের ওপর ৭ দিনের কোঠর বিধিনিষেধ আরোপের পর তার মেয়াদ কয়েক দফা বাড়িয়ে ১৬ই জুন বা আজ বুধবার পর্যন্ত করা হয়েছিল।

এদিকে, সীমান্তবর্তী এবং তার আশপাশের জেলাগুলোতে করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ প্রকট আকার ধারণ করায় সেখানে করোনায় মৃত্যু ও সংক্রমণ দিনে দিনে বেড়েই চলেছে। এসকল জেলা সমূহের প্রত্যন্ত গ্রামাঞ্চল পর্যন্ত এখন করোনা ভাইরাস তার থাবা বিস্তার করেছে বলে ঢাকায় পাওয়া খবরে জানা গেছে । রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল শামীম ইয়াজদানী আজ সাংবাদিকদের জানিয়েছেন হাসপাতালটিতে এখন যে ৩৪৪ জন করোনা রোগী চিকিৎসাধীন আছেন তার ৪০ শতাংশই গ্রামাঞ্চলের। তিনি আরও জানান চলতি জুন মাসের গত ১৬ দিনে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালেই মারা গেছেন ১৬১ জন করোনা রোগী।

সীমান্ত অঞ্চলের স্বাস্থ্য কর্মকর্তারা সংবাদ মাধ্যমকে জানিয়েছেন অপর্যাপ্ত ডাক্তার ও নার্স নিয়েই সেখানকার হাসপাতাল গুলোকে সামাল দিতে হচ্ছে অব্যাহত ভাবে খারাপ হতে থাকা করোনা মহামারি পরিস্থিতি। খবরে বলা হয় তাঁরা অভিযোগ করেছেন আগে থেকেই চিকিৎসক সংকট ছিল এবং করোনা সামাল দিতে গিয়ে এই সংকট প্রকট আকার ধারণ করেছে। করোনা পরবর্তী ব্ল্যাক ফাঙ্গাসেও আক্রান্তের সংখ্যা বাড়ছে বলে উল্লেখ করে খবরে বলা হয় চিকিৎসাসেবার সক্ষমতা না বাড়ালে করোনায় মৃত্যুর হার আরও বাড়ার আশঙ্কা করছেন স্বাস্থ্য কর্মকর্তারা।

এদিকে, সংক্রমণ রোধে অনেক সীমান্ত জেলায় লক ডাউন দেওয়া হলেও এক শ্রেণীর মানুষের উদাসীনতা এবং জনসচেতনতার অভাবে তা কার্যকর হচ্ছেনা যার ফলে ছড়িয়ে পড়ছে সংক্রমণ। করোনা ভাইরাস বিষয়ক জাতিয় পরামর্শক কমিটির সভাপতি ডা. সহিদুল্লাহ বৈজ্ঞানিক তত্ত্বের উল্লেখ করে দেশের যে সকল এলাকায় করোনার প্রাদুর্ভাব রয়েছে সে সকল এলাকাগুলোকে সম্পূর্ণ সিল করে দেয়ার পরামর্শ দিয়ে বলেন এটা করা গেলে পশ্চিমাঞ্চলের উচ্চ সংক্রমনশিল করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ দেশের অন্যান্য যায়গায় ছড়িয়ে পড়ার সম্ভাবনা থাকবেনা। অপরদিকে, দেশে করোনা ভাইরাসে মৃত্যু এবং সংক্রমণ দুইই বেড়ে চলেছে। আজ সরকারের দেয়া তথ্য মোতাবেক দেশে গত ২৪ ঘণ্টায় মারা গেছেন ৬০ জন করোনা রোগী এবং নতুন আক্রান্ত হয়েছেন ২৬৭৯ জন।

সূত্র: ভয়েজ অব আমেরিকা

Share on facebook
Share on twitter
Share on whatsapp
Share on email