Skip to content

সেক্সের বিনিময়ে এক মহিলা রোগীকে ফ্রিতে বোটক্স! প্রশ্নের মুখে সেলিব্রিটি চিকিৎসক

বিষয়সূচি

যৌনতার বিনিময়ে বিনামূল্যে বোটক্স করছেন চিকিৎস! একটি টিভি কসমেটিক চিকিৎসক তাঁর ক্লিনিকে যৌনতার বিনিময়ে একজন রোগীকে বিনামূল্যে বোটক্স দিয়েছেন, একটি মেডিকেল ট্রাইব্যুনাল এমনই তথ্য দিয়েছে। বিবিসি-র  রিপোর্ট অনুযায়ী, ডক্টর টিজিয়নের অনেক সেলিব্রিটি ক্লায়েন্ট রয়েছে। তিনি আইটিভির দিস মর্নিং এবং বিবিসির মর্নিং লাইভ এবং E4’s Body Fixers-এ নিয়মিত অতিথি হিসাবে উপস্থিত হন।

কী বলছে রিপোর্ট

মেট্রোর রিপোর্ট বলছে, এই ক্ষেত্রে জড়িত মহিলা শুধুমাত্র ভক্ত এবং ওয়েবক্যাম পরিষেবাগুলির জন্য প্রাপ্তবয়স্ক সামগ্রী তৈরি করেন। তিনি তাঁর ঠোঁটের কসমেটিক্স চিকিৎসার জন্য চিকিৎসকের সঙ্গে যোগাযোগ করেছিলেন। 

আরও পড়ুন: দেখা গিয়েছে শাওয়াল মাসের চাঁদ, খুশির ‘ইদ-উল-ফিতর’ পালিত হচ্ছে ভারত জুড়ে, দেখুন টুকরো ছবি

আরও পড়ুন: ইদে কেমন সাজবেন ভাবছেন, ট্রাই করতে পারেন মা-মেয়ে সোহা-ইনায়ার মতো এই এথেনিক লুক

‘শারীরিক সম্পর্ক থাকার কথা অস্বীকার’

৪২ বছর বয়সী চিকিৎসক মেডিকেল ট্রাইব্যুনাল প্র্যাকটিশনার সার্ভিস (এনপিটিএস)-এর শুনানিতে বলেছিলেন, একজন মহিলার সঙ্গে তাঁর একটি অনুপযুক্ত মানসিক সম্পর্ক ছিল, তবে তাঁর সঙ্গে শারীরিক সম্পর্ক থাকার কথা অস্বীকার করেছেন। ২০১৯-এর জুলাই থেকে ফেব্রুয়ারি ২০২২-এর মধ্যে ইনস্টাগ্রামে মহিলার সঙ্গে ‘অনুপযুক্ত’ মেসেজ বিনিময় করার কথাও স্বীকার করেছেন। 

আরও পড়ুন: বাড়ি ভর্তি অতিথি, কারও বাড়ি জমিয়ে দাওয়াত, বলি সেলেবদের ইদের ছবি দেখুন

আরও পড়ুন: ‘কুৎসিত’ মেকআপ করা হয়েছে টাবুকে, নেটিজেনের প্রশ্ন, ‘আপনারা কী করেছেন ওর সঙ্গে?’

MTPS প্যানেলের রায় অনুযায়ী, চিকিৎসক রোগীর সঙ্গে যৌন সম্পর্কে লিপ্ত হয়েছেন। এমনকী ২০২১ সালে নিজের নিউক্যাসল-আপন-টাইন ক্লিনিকে ওই মহিলাকে বিনামূল্যে বোটক্স ট্রিটমেন্ট দিয়েছেন। 

চিকিৎসক কী বলছেন

এ দিকে চিকিৎসক জানিয়েছেন, তিনি ট্রাইব্যুনালের সিদ্ধান্তে ‘হতাশ’। জোর দিয়ে জানিয়েছেন, রোগীর সঙ্গে তাঁর কোনও শারীরিক সম্পর্ক ছিল না। 

আরও পড়ুন: ‘বোঝা ভাগ করে নিয়েছিল..’, পকেটে টাকা ছিল না, বিল দিতেন স্ত্রী সুনীতা, আবেগঘন অনিল

জবানবন্দিতে চিকিৎসক বলেন, শুনানি ও তদন্তের সময় আমি সম্পূর্ণ সহযোগিতা করেছি। আমি জোর দিয়েছিলাম বলেছিলাম, রোগীর সঙ্গে কথোপকথনের সময় আমি যে ভুলগুলি করেছি তার জন্য আমি গভীরভাবে অনুতপ্ত। আমি সেসব অভিযোগ মেনে নিয়েছি। আমি সত্যিই দুঃখিত এবং আমি ক্ষমাপ্রার্থী। আমার জীবনের উদ্দেশ্য ছিল সবসময় লোকদের সাহায্য করা, আগামীতেও তাই করতে চান। 

ডাঃ এশোর ক্লিনিক

এশো ক্লিনিকের প্রতিষ্ঠাতা ডাঃ এশো। লন্ডন, লিভারপুল এবং দুবাইতেও রয়েছে তাঁর ক্লিনিক। অনেক সেলিব্রিটি ক্লায়েন্ট রয়েছে তাঁর। 

বার্তা সূত্র