Skip to content

সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির অনন্য দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছেন কাজী নজরুল: ন্যাপ

সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির অনন্য দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছেন কাজী নজরুল: ন্যাপ

জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলামের অমর স্মৃতির প্রতি গভীরতম শ্রদ্ধা জানিয়ে বাংলাদেশ ন্যাশনাল আওয়ামী পার্টি-বাংলাদেশ (ন্যাপ) চেয়ারম্যান জেবেল রহমান গানি ও মহাসচিব এম. গোলাম মোস্তফা ভুইয়া বলেছেন, একজন মানুষ হিসেবে কাজী নজরুল ইসলাম জন্ম গ্রহন করলেন আবার মারাও গেলেন। জন্ম-মৃত্যুর এই সময়ের মাঝে নিজের সৃজনশীলতা দিয়ে জনপদে অমর হয়ে রইলেন। তিনি আমাদের মাঝে অমর হয়ে রইলেন মানবতার কবি, মানুষের কবি হিসাবেই।

বুধবার (২৪ মে) গণমাধ্যমে ‘জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলামের ১২৪ তম জন্মবার্ষিকী’ উপলক্ষে প্রেরিত এক বাণীতে তারা এ কথা বলেন।

নেতৃদ্বয় বলেন, কাজী নজরুলের সাহিত্যের বজ্র বিদ্যুৎ নিয়ে উড়ে বাংলা সাহিত্যের আকাশ জুড়ে। কবির সৃজনশীল জীবনের সময়সীমা স্বল্পকালীন হলেও অনেক বেশি বিচিত্র, তাঁর ব্যাক্তি জীবন ও কর্মজীবনে আমরা সেটাই দেখি। একাধারে সাম্যের-মানবতার, প্রেমের-দ্রোহের, বিদ্রোহের কবি তিনি আমাদের জাতীয় চেতনার প্রতিচ্ছবি।

তারা বলেন, কাজী নজরুলের বিদ্রোহী চেতনার ভেতর কাজ করেছে তার অন্তর্দৃষ্টি, মানবসত্তা, মানবকল্যাণ সর্বোপরি মানুষের শৃঙ্খল মুক্তির তীব্র বাসনা। যে বাসনা তার আজন্ম লালিত দ্রোহকে চরম বিদ্রোহে পরিণত করেছে। পরাধীনতার গ্লানী মোচনের জন্য তার জাগরণ সংগ্রাম তার বিদ্রোহী চেতনাকে পরিপক্ব করেছিল যা পরবর্তীকালে কাজী নজরুলকে বাধাহীনভাবে প্রকাশ্য বিদ্রোহের দোরগোড়ায় এনে দাঁড় করেছিল।

নেতৃদ্বয় আরো বলেন, বাংলার-বাঙ্গালীর জাতীয়তাবাদী একজন মানুষের মানবিক সত্ত্বা কেমন হতে পারে, তা নজরুল আমাদের দেখিয়েছেন। তিনি দেশকালের সীমা অতিক্রম করে দুঃশাসন, অপশাসনকে ডিঙিয়ে মাড়িয়ে উচ্চারণ করেন তার কবিতা।

তারা বলেন, অত্যাচার, অবিচার ও শোষণের বিরুদ্ধে দ্রোহের মূর্ত প্রতীক হয়ে থাকবেন কাজী নজরুল ইসলাম। অন্যায়ের বিরুদ্ধে ঘুরে দাঁড়াতে আজীবন সাহস যোগাবে বিদ্রোহী কবি। অধিকার আদায়ের সংগ্রামে জাতীয় কবি আমাদের উজ্জ্বল অনুপ্রেরণা।

নেতৃদ্বয় বলেন, বিদ্রোহ, সাম্য, প্রেম ও মানবতার কবি কাজী নজরুল ইসলামের কবিতা, গান, প্রবন্ধ, নাটক ও উপন্যাস বিশ্ব সম্প্রদায়কে আজীবন মুক্তির পথে অবিচল রাখবে। তিনি ইসলামি সংগীতের পাশাপাশি একাধারে শ্যামা সংগীত রচনা করে সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির অনন্য দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছেন।

বিবার্তা/মাসুম



বার্তা সূত্র