Skip to content

সভাপতির বিরুদ্ধে যৌন হেনস্থার অভিযোগ, বরখাস্ত হলেন সহ-সভাপতি! কুস্তিগিরদের ‘মি-টু’ কাণ্ডে নয়া মোড়

সভাপতির বিরুদ্ধে যৌন হেনস্থার অভিযোগ, বরখাস্ত হলেন সহ-সভাপতি! কুস্তিগিরদের 'মি-টু' কাণ্ডে নয়া মোড়

Sports ministry: কুস্তি ফেডারেশনের প্রেসিডেন্ট ব্রীজ ভূষণ শরণ সিংয়ের বিরুদ্ধে মূল অভিযোগ উঠলেও, সহ-সভাপতি বিনোদ তোমার তাঁর সঙ্গে ঘনিষ্ঠভাবে কাজ করতেন।

সহ সভাপতি বিনোদ তোমার।

নয়া দিল্লি: কুস্তিগিরদের বিক্ষোভে নয়া মোড়। রেসলিং ফেডারেশন অব ইন্ডিয়া(Wrestling Federation of India)-র প্রেসিডেন্ট ব্রীজভূষণ শরণ সিং(Brij Bhushan Sharan Singh)-য়ের বিরুদ্ধে মহিলা কুস্তিগিরদের যৌন হেনস্থা ও যৌন শোষণের অভিযোগ উঠেছিল। প্রতিবাদে ধর্নায় বসেছিলেন দেশের নামি-দামি পদকজয়ী কুস্তিগিররা। বিক্ষোভে উত্তাল হয়েছিল দিল্লি। বিক্ষোভকারী কুস্তিগিরদের দাবি ছিল, অবিলম্বে ফেডারেশনের প্রধানের পদ থেকে সরাতে হবে ব্রীজভূষণ শরণ সিংকে। প্রেসিডেন্টের বিরুদ্ধে অভিযোগ উঠলেও, সরানো হল ফেডারেশনের সহ-সভাপতিকে। শনিবারই কেন্দ্রীয় ক্রীড়া মন্ত্রকের তরফে জানানো হয়, ফেডারেশনের সহ-সভাপতি বিনোদ তোমার(Vinod Tomar)-কে সাসপেন্ড করা হচ্ছে। আপাতত বন্ধ রাখা হচ্ছে সমস্ত কুস্তি প্রতিযোগিতাও। এদিকে, সাসপেন্ড হওয়ার খবর পেয়েই ফেডারেশনের সহ সভাপতি বিনোদ তোমার জানান, তিনি এই বিষয়ে কিছুই জানতেন না।

কেন্দ্রীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, কুস্তিগিরদের সঙ্গে কেন্দ্রীয় ক্রীড়া মন্ত্রী অনুরাগ ঠাকুরের যে বৈঠক হয়, তাতেই এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। কুস্তি ফেডারেশনের প্রেসিডেন্ট ব্রীজ ভূষণ শরণ সিংয়ের বিরুদ্ধে মূল অভিযোগ উঠলেও, সহ-সভাপতি বিনোদ তোমার তাঁর সঙ্গে ঘনিষ্ঠভাবে কাজ করতেন। ফেডারেশনের নিত্যদিনের যাবতীয় কাজকর্ম তিনিই সামলাতেন। সেই কারণেই ব্রীজ ভূষণের পাশপাশি  বিনোদ তোমারকেও সাসপেন্ড করা হয়েছে বলে জানা গিয়েছে।

কুস্তিগিরদের যৌন হেনস্থার বিষয়টি সামনে আসতেই ক্রীড়া মন্ত্রকের তরফে আপাতত যাবতীয় প্রতিযোগিতা ও অনুষ্ঠান বন্ধ রাখার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। বর্তমানে উত্তর প্রদেশের গোন্দায় র‌্যাঙ্কিং টুর্নামেন্ট চলছে। সেই টুর্নামেন্টও আপাতত স্থগিত রাখার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। যে সমস্ত প্রতিযোগীরা এই টুর্নামেন্টে অংশ নিয়েছিলেন, তাদের এন্ট্রি ফি ফেরত দেওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে ফেডারেশনকে।

প্রসঙ্গত, পদকজয়ী কুস্তিগির ভিনেশ ফোগাট সম্প্রতি অভিযোগ আনেন যে ফেডারেশনের প্রেসিডেন্ট তথা বিজেপি সাংসদ ব্রীজ ভূষণ শরণ সিং মহিলা কুস্তিগিরদের সুযোগ ও প্রশিক্ষণ দেওয়ার নামে যৌন হেনস্থা করেন। একাধিক প্রশিক্ষকও এই হেনস্থার সঙ্গে জড়িত। ফোগাটের এই দাবিতে সমর্থন জানান বজরঙ্গ পুনিয়া, সাক্ষী মালিকের মতো একাধিক অলিম্পিক পদকজয়ীরা।

এই খবরটিও পড়ুন

যদিও শনিবার ফেডারেশনের তরফে যৌন হেনস্থা সহ যাবতীয় অভিযোগ অস্বীকার করা হয়েছে এবং এটিকে চক্রান্তের অ্যাখ্যা দেওয়া হয়েছে।

বার্তা সূত্র