শেখ হাসিনার গাড়ি বহরে হামলা: আরও একজনের সাক্ষ্যগ্রহণ

শেখ হাসিনার গাড়ি বহরে হামলা: আরও একজনের সাক্ষ্যগ্রহণ
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সাতক্ষীরার কলারোয়ায় তৎকালীন বিরোধীদলীয় নেতা ও বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার গাড়ি বহরে হামলার মামলায় আদালতে আরও একজনের সাক্ষ্যগ্রহণ হয়েছে।

রোববার (২০ ডিসেম্বর) দুপুরে সাতক্ষীরার চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে সাক্ষ্য দেন সাংবাদিক ইয়ারব হোসেন।

এ নিয়ে মোট ১৯ জনের সাক্ষ্যগ্রহণ করেছেন আদালত। এ মামলার পরবর্তী শুনানির দিন ২১ ডিসেম্বর তারিখ নির্ধারণ করেছেন আদালত।

আদালতে কলারোয়ার আওয়ামী লীগ নেতা সাজেদুর রহমান খান চৌধুরী, উপজেলা চেয়ারম্যান আমিনুল ইসলাম লাল্টু ও মুক্তিযোদ্ধা শওকত আলীর পুনরায় সাক্ষ্য জেরা করা হয়েছে।

আসামিপক্ষে এ সময় শুনানিতে অংশ নেন, সুপ্রিম কোর্টের সিনিয়র আইনজীবী ও বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল বিএনপির কেন্দ্রীয় কমিটির যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ব্যারিস্টার মাহাবুবউদ্দিন খোকন, অ্যাড.শাহানারা আক্তার বকুল, অ্যাড. আব্দুল মজিদ (২), অ্যাড. সৈয়দ ইফতেখার আলী, অ্যাড. মিজানুর রহমান পিন্টু প্রমুখ।

আসামি পক্ষের আইনজীবী ব্যারিস্টার মাহাবুবউদ্দিন খোকন বলেন, তৎকালীন আওয়ামী লীগ, বিএনপি ও কিছু সাংবাদিকের মধ্যে ধাক্কাধাক্কি হয়েছিল। ওই সময় থানা তদন্তে কিছুই পাই নাই। সাবেক বিরোধী দলীয় নেত্রী ও বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার গাড়ি বহরে হামলার কোনো ঘটনাই সে সময় ঘটেনি। এটা একটি রাজনৈতিক উদ্দেশ্য প্রণোদিত মামলা।

রাষ্ট্রপক্ষের শুনানিতে অংশ নেন, অতিরিক্ত অ্যাটর্নি জেনারেল এসএম মুনীর, ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল সুজিত চ্যাটার্জি, ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল শেখ সিরাজুল ইসলাম সিরাজ ও সহকারী অ্যাটর্নি জেনারেল শাহীন মৃধা ও সাতক্ষীরা জজ কোর্টের পিপি অ্যাড. আব্দুল লতিফ।

অতিরিক্ত অ্যাটর্নি জেনারেল এসএম মুনীর জানান, ন্যায় বিচার হলে প্রত্যেক আসামির ১০ বছর পর্যন্ত জেল হবে বলে মনে করেন সরকারি পক্ষের এ আইনজীবী।

উল্লেখ্য, ২০০২ সালের ৩০ আগস্ট তৎকালীন বিরোধী দলীয় নেত্রী ও বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সাতক্ষীরা সদর হাসপাতালে ধর্ষিতা এক মুক্তিযোদ্ধার স্ত্রীকে দেখতে আসেন। হাসপাতাল থেকে ঢাকায় ফেরার পথে বেলা সাড়ে ১১টার দিকে সাতক্ষীরার কলারোয়া বিএনপি অফিসের সামনে গাড়ি বহরে হামলার অভিযোগ ওঠে তৎকালীন সাতক্ষীরা-১ আসনের সংসদ সদস্য হাবিবুল ইসলাম হাবিবসহ নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে।

এ ঘটনায় উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক মোসলেম উদ্দীন বাদী হয়ে উপজেলা যুবদলের সভাপতি আশরাফ হোসেনসহ ২৭ জনের নাম উল্লেখ পূর্বক অজ্ঞাত ৭০ থেকে ৭৫ জনের নামে আদালতে মামলা দায়ের করেন।

DMCA.com Protection Status

সূত্র: সময় টিভি


  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।