শরণার্থী শিশুদের জন্য সেসেমি স্ট্রিটের রোহিঙ্গা মাপেট

শরণার্থী শিশুদের জন্য সেসেমি স্ট্রিটের রোহিঙ্গা মাপেট
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

কক্সবাজারে বাস করা শরণার্থী শিশুদের জন্য বানানো বিভিন্ন শিক্ষামূলক ভিডিওর সিরিজে ওই দুই মাপেটকে দেখা যাবে বলে বিবিসির এক প্রতিবেদনে জানানো হয়েছে।

মাপেট দুটির নাম নুর ও আজিজ; তারা ৬ বছর বয়সী জমজ ভাইবোনের চরিত্র করবে।

সেনাবাহিনীর বর্বর নির্যাতন থেকে বাঁচতে ২০১৭ সালের পর থেকে ৭ লাখেরও বেশি রোহিঙ্গা মুসলমান প্রতিবেশী মায়ানমার থেকে পালিয়ে বাংলাদেশে চলে আসে।

তাদের শরণার্থী শিবিরে এখন অর্ধেকই শিশু।

করোনাভাইরাস মহামারীর কারণে গুরুত্বপূর্ণ পরিষেবার আকার ছোট হওয়ায় দাতা সংস্থাগুলো অনেক দিন ধরেই বাল্য বিবাহ এবং শরণার্থী শিবির থেকে শিশু পাচারের পরিমাণ বেড়ে যেতে বলে সতর্ক করে আসছে।

নুর ও আজিজের সঙ্গে এলমোর মতো সেসেমি স্ট্রিটের জনপ্রিয় মুখগুলো শিক্ষামূলক ভিডিওর যে সিরিজে অংশ নেবে তাতে গণিত আর বিজ্ঞানের পাশাপাশি সামাজিক ও মানসিক নানান বিষয়ও থাকবে।

“মূলত রোহিঙ্গা শিশুদের জন্যই সেসেমি স্ট্রিটের এই দুটি বিশেষ মাপেট; নুর ও আজিজ হতে যাচ্ছে মিডিয়াতে হাজির হওয়া প্রথম দুই চরিত্র যাদের দেখতে শুনতে তাদের (রোহিঙ্গা) মতোই লাগবে,” বলেছেন সেসেমি ওয়ার্কশপের শেরি ওয়েস্টিন।

সেসেমির এই ওয়ার্কশপ যুক্তরাষ্ট্রে ব্যাপক জনপ্রিয় শো সেসেমি স্ট্রিটের অলাভজনক শাখা।

মিয়ানমারের সংখ্যালঘু রোহিঙ্গাদের বিশ্বের অন্যতম নির্যাতিত জনগোষ্ঠী বলা হয়। চলতি বছরের জানুয়ারিতে জাতিসংঘের শীর্ষ আদালত রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠীর সদস্যদেরকে গণহত্যার হাত থেকে বাঁচাতে ব্যবস্থা নিতে মিয়ানমারকে নির্দেশও দিয়েছে।

বাংলাদেশের ব্র্যাক ইনস্টিটিউট অব এডুকেশনাল ডেভেলপমেন্ট ও লেগো ফাউন্ডেশনসহ অনেকগুলো আন্তর্জাতিক সংস্থার ‘প্লে টু লার্ন’ কর্মসূচির অংশ হিসেবে রোহিঙ্গাদের ভাষায় সেসেমি স্ট্রিটের ভিডিও বানানোর এ পরিকল্পনা হয় বলে জানিয়েছে বিবিসি।

সেসেমি স্ট্রিট এর আগে সিরিয়ার শরণার্থী শিশুদের নিয়েও কাজ করেছিল; চলতি বছরের শুরুতে তারা দেশটিতে আহলান সিমসিম নামে তাদের অনুষ্ঠানেরই একটি আরবি সংস্করণ প্রযোজনাও করে।


  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।