Skip to content

রোহিঙ্গা শরণার্থীদের জন্য আরো ৫২ লাখ পাউন্ড সহায়তা দিচ্ছে যুক্তরাজ্য

রোহিঙ্গা শরণার্থীদের জন্য আরো ৫২ লাখ পাউন্ড সহায়তা দিচ্ছে যুক্তরাজ্য

বাংলাদেশে আশ্রয় নেয়া রোহিঙ্গা শরণার্থীদের মানবিক সহায়তা হিসেবে আরো ৫২ লাখ পাউন্ড (৭৩ কোটি ২০ লাখ টাকা) সহায়তা দিচ্ছে যুক্তরাজ্য। বৃহস্পতিবার (১৪ মার্চ) ঢাকা অবস্থিত ব্রিটিশ হাইকমিশন এ তথ্য জানিয়েছে।

বাংলাদেশে নিযুক্ত ব্রিটিশ হাইকমিশনার সারাহ কুক জানান, কক্সবাজারের শরণার্থী শিবিরে মানবিক প্রয়োজন মেটাতে নতুন এই সহায়তা দেয়া হচ্ছে।

বুধবার (১৩ মার্চ) জেনেভায় ‘জয়েন্ট রেসপন্স প্ল্যান’ নামে বাংলাদেশে আশ্রয় নেয়া রোহিঙ্গাদের সহায়তার জন্য ২০২৪ সালের মানবিক আবেদনের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে এ ঘোষণা দেয় যুক্তরাজ্য।

বিশ্ব খাদ্য কর্মসূচি (ডব্লিউএফপি), আন্তর্জাতিক অভিবাসন সংস্থা (আইওএম) ও জাতিসংঘের শরণার্থী সংস্থা (ইউএনএইচসিআর) যৌথভাবে এই পরিকল্পনা বাস্তবায়ন করেছে।

যুক্তরাজ্যের এই নতুন সহায়তা প্যাকেজের অধীনে কক্সবাজারে রোহিঙ্গা শরণার্থীদের জন্য খাদ্য ও রান্নার গ্যাস সরবরাহ করা হবে।

বাংলাদেশে নিযুক্ত ব্রিটিশ হাইকমিশনার সারাহ কুক বলেন, “কক্সবাজারের শরণার্থী শিবিরে মানবিক প্রয়োজন মেটাতে এবং রোহিঙ্গাদের জন্য অত্যাবশ্যকীয় খাদ্য ও রান্নার গ্যাস সরবরাহের জন্য আমি ৫২ লাখ পাউন্ডের এই নতুন প্যাকেজ ঘোষণা করতে পেরে আনন্দিত।”

“এই সংকটে ক্ষতিগ্রস্ত রোহিঙ্গা শরণার্থী ও স্থানীয় বাংলাদেশি জনগোষ্ঠীর পাশে রয়েছে যুক্তরাজ্য।আমরা রোহিঙ্গাদের আশ্রয় দেয়ার ক্ষেত্রে বাংলাদেশের সর্বোচ্চ প্রচেষ্টাকে স্বীকৃতি দিই এবং দীর্ঘমেয়াদি সমাধান খুঁজে বের করতে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ;” যোগ করেন হাইকমিশনার সারাহ কুক।

হাইকমিশনার জানান, ইতোমধ্যেই ক্ষতিগ্রস্তদের মানবিক সহায়তা দেয়েছে যুক্তরাজ্য। এই বছরের শেষের দিকে অতিরিক্ত সহায়তার ঘোষণা দেয়া হবে বলে জানান তিনি।

যুক্তরাজ্যের এই নতুন সহায়তার আওতায়, ৩ লাখ ১১ হাজার ৬০০ রোহিঙ্গা শরণার্থীকে খাদ্য সরবরাহ করতে ডব্লিউএফপি’র জন্য ২৮ লাখ পাউন্ড দেয়া হবে। আর, ৪ লাখ ৮৯ হাজার ৮০০ রোহিঙ্গা শরণার্থীকে রান্নার গ্যাস সরবরাহের জন্য আইওএম ও ইউএনএইচসিআরকে দেয়া হবে ২৪ লাখ পাউন্ড।

গত ২০১৭ সাল থেকে বাংলাদেশে আশ্রয় নেয়া রোহিঙ্গা শরণার্থী ও সেখানকার স্থানীয় জনগোষ্ঠীর জন্য মানবিক সহায়তা দিয়ে আসছে যুক্তরাজ্য।

সূত্র: ভয়েজ অব আমেরিকা