Skip to content

রাজ্যের প্রাক্তন সংখ্যালঘু উন্নয়ন মন্ত্রী কি পারবেন সংখ্যালঘু মনে সিপিএমের প্রতি ভরসা ফেরাতে, তাকিয়ে রাজনৈতিক মহল 

রাজ্যের প্রাক্তন সংখ্যালঘু উন্নয়ন মন্ত্রী কি পারবেন সংখ্যালঘু মনে সিপিএমের প্রতি ভরসা ফেরাতে, তাকিয়ে রাজনৈতিক মহল 

কলকাতা : গতকাল ইতিহাস সৃষ্টি করেছে বঙ্গ সিপিএম। প্রথম সংখ্যালঘু সমাজ থেকে রাজ্য সম্পাদক করে হল কাউকে। নিঃসন্দেহে এই একটি সিদ্ধান্তে অনেক দাবি তার প্রাসঙ্গিকতা হারালো। যেমন অনেকেই দাবি করতেন সিপিএম ব্রাহ্মণ্যবাদে বিশ্বাসী একটি দল। গতকালের পর থেকে আর এই দাবিগুলি উঠবেনা বলে মনে করছেন রাজনৈতিক পর্যবেক্ষকরা। 

– Advertisement –

আরও পড়ুন : দেউচা পাঁচামি নিয়ে আগামী দিনে বৃহত্তর আন্দোলনে নামবে CPIM, ইঙ্গিত দিলেন মহম্মদ সেলিম

আরও পড়ুন : “যারা রাজ্যের মানুষের ঘুম কেড়েছে, তাদের আমরা নিশ্চিন্তে ঘুমোতে দেব না” হুশিয়ারি সেলিমের 

মহম্মদ সেলিম একসময় বুদ্ধদেব ভট্টাচার্যর মন্ত্রিসভায় সংখ্যালঘু উন্নয়ন দফতর ও যুবকল্যাণ দফতরের মন্ত্রী ছিলেন। তারপর গঙ্গা দিয়ে বয়ে গিয়েছে অনেক জল। ২০০৫ সালে দিল্লি হাইকোর্টের প্রাক্তন প্রধান বিচারপতি রাজিন্দর সাচারের নেতৃত্বাধীন কমিটির ‘সাচার কমিটির’ রিপোর্ট সামনে আসার পর বামেদের থেকে সরে গিয়েছিল বাংলার অধিকাংশ সংখ্যালঘু মানুষ। পরবর্তী ক্ষেত্রে এই সংখ্যালঘু মানুষদের অধিকাংশের সমর্থন যায় তৃণমূল কংগ্রেসের দিকে। এমনকি তৃণমূল কংগ্রেসের তৃতীয় বারের জন্য বিপুল বিজয়ের পিছনে অন্যতম নিয়ন্ত্রক ছিলেন সংখ্যালঘু মানুষেরা। 

সারাদিনের সমস্ত খবরের আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন খাস খবর অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ: https://play.google.com/store/apps/details?id=app.aartsspl.khaskhobor

অ্যাপ স্টোর থেকে ডাউনলোড করুন: https://apps.apple.com/us/app/khas-khobor/id1611881040

– Advertisement –

বিস্তারিত খবর, লাইভ ভিডিও সহ সমস্ত রকম আপডেট পেতে লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ: https://www.facebook.com/khaskhobor2020

রাজনৈতিক পর্যবেক্ষকদের মতে, মহম্মদ সেলিমের ক্ষেত্রে কঠিন লড়াই হল, রাজ্যের সংখ্যালঘু সমাজের ভরসা ফের বামেদের দিকে ফিরিয়ে আনা। অধ্যাপক গৌতম রায়ের মতে, “মহম্মদ সেলিম ভারতের বহুত্ববাদের সংস্কৃতিতে বিশ্বাসী একজন মানুষ। তাকে শুধু তাঁর জন্মপরিচয় দিয়ে দেখলে ভুল হবে। মহম্মদ সেলিম যখন রাজ্যের সংখ্যালঘু উন্নয়ন মন্ত্রী ছিলেন কিছু সময়ের জন্য, তখন তিনি সংখ্যালঘু উন্নয়নে একাধিক ভূমিকা নিয়েছিলেন এবং সংখ্যালঘুর প্রতি সংখ্যাগুরুর যে দায়িত্ব রয়েছে তা তিনি বারবার তাঁর কাজের মধ্যে দিয়ে প্রমাণ করার চেষ্টা করেছেন। মহম্মদ সেলিম যদি রাজ্যের সংখ্যালঘু উন্নয়ন মন্ত্রীর দায়িত্ব ধারাবাহিক ভাবে পালন করতে পারতেন তাহলে আজকে এভাবে সিপিএমের থেকে সংখ্যালঘু সমাজ মুখ ফিরিয়ে নিতো না। সংখ্যালঘু মানে শুধু ধর্মীয় সংখ্যালঘু নয়, ভাষাগত সংখ্যালঘু, লিঙ্গগত সংখ্যালঘু, সমাজের পিছিয়ে পড়া মানুষ সকলের জন্য কাজ করেন মহম্মদ সেলিম। মহম্মদ সেলিম মন্ত্রী থাকাকালীন স্বামী পরিত্যক্তা মুসলমান মহিলাদের জন্য একটি সরকারী তহবিল তৈরি করেছিলেন কিন্তু মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ক্ষমতায় আসার পর সেই তহবিল বন্ধ করে দেন। মহম্মদ সেলিম আগামী দিনে দলকে কিভাবে ঘুরে দাড় করাবেন সেটা সময় বলবে, তবে তিনি সকলকে নিয়ে কাজ করতে পারেন এটা তাকে এই কঠিন লড়াইয়ের ক্ষেত্রেও সাহায্য করবে”।  



বার্তা সূত্র