Skip to content

রাঙামাটিতে সংঘবদ্ধ ধর্ষণ,আটক ১





বিএনএ, চট্টগ্রাম : রাঙামাটির বাঘাইছড়ি এলাকায় সংঘবদ্ধ ধর্ষণ মামলার আসামী যিশু চৌধুরী (২৭)’কে চট্টগ্রাম নগরীর আন্দরকিল্লা থেকে গ্রেফতার করেছে র‍্যাব-৭। শুক্রবার(৭ অক্টোবর) তাকে গ্রেফতার করা হয়। গ্রেফতারকৃত যিশু চৌধুরী রাঙামাটির বাঘাইছড়ি থানার করেঙ্গাতলী বাজার এলাকার সমীর চৌধুরীর ছেলে।
র‌্যাব-৭ জানায়, ভিকটিম ২১ বছর বয়সের এবং রাঙ্গামাটি জেলার বাঘাইছড়ি এলাকার একটি কলেজ থেকে উচ্চ মাধ্যমিক পরিক্ষায় উর্ত্তীণ হয়। গত ১৫ জুলাই রাত আনুমানিক ৯ টায় আসামী বিপ্লব বড়ুয়া ভিকটিমের সাথে জরুরী আলাপ আছে বলে বাড়ির বাইরে নিয়ে যায়। পরবর্তীতে ভিকটিম আর ঘরে ফিরে না আসায় ভিকটিমের মা আশে-পাশে খোঁজাখুঁজি করেন। পরদিন ১৬ জুলাই ভোর বেলায় ভিকটিম বাড়িতে এসে জানায় আসামী বিপ্লব বড়ুয়া তাকে বাড়ির বাইরে ডেকে নেওয়ার পর আসামী যিশু চৌধুরী সহ কতিপয় দুষ্কৃতিকারী তার মুখ চেপে ধরে বাঘাইছড়ি এলাকায় একটি বসত ঘরে নিয়ে যায়। সেখানে ভিকটিমকে সারারাত  ধর্ষণ করে।

উক্ত ঘটনার প্রেক্ষিতে ভিকটিমের মা বাদী হয়ে রাঙ্গামাটি জেলার বাঘাইছড়ি থানায় ৫ জনকে আসামী করে একটি মামলা দায়ের করেন ।

র‌্যাব ৭ আরও জানায়, এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে পাহাড়ী চাকমাদের সাথে ঐখানকার সংখ্যালঘু বড়ুয়া, হিন্দু ও মুসলিমদের দ্বন্ধ চরম আকার ধারণ করে এবং এক পর্যায়ে গোলাগুলির পর্যায়ে যায়। এজাহার নামীয় ৫ জন আসামীর মধ্যে ২ জন বৌদ্ধ, ১ জন হিন্দু ও ২ জন মুসলিম সম্প্রদায়ের লোক ছিল। ৫ জন আসামীই একে অপরের ঘনিষ্ঠ বন্ধু। উক্ত ঘটনায় ইউপিডিএফ গ্রুপ ৫ অভিযুক্তকে আগুনে পুড়িয়ে হত্যা করার চেষ্টাও করেছিল। সেনাবাহিনী এই সংঘাত এড়ানোর জন্য দুই পক্ষকে নিয়ে আলোচনাও করেছে। কিন্তু আসামীরা গ্রেফতার না হওয়ায় সমাধান হচ্ছিল না। আসামীরা এলাকা ছেড়ে চট্টগ্রাম শহরের বিভিন্ন স্থানে আত্মগোপন করেছিল।

এরই ধারাবাহিকতায় র‌্যাব-৭ জানতে পারে উক্ত ধর্ষণ মামলার আসামী যীশু চৌধুরী চট্টগ্রাম মহানগরীর কোতোয়ালী থানাধীন রাজাপুর লেইন আন্দরকিল্লা এলাকায় অবস্থান করছে। উক্ত তথ্যের ভিত্তিতে র‌্যাব-৭ তাকে শুক্রবার ভোর সাড়ে ৫ টায় গ্রেফতার করতে সক্ষম হয়।
বিএনএ/ ওজি



Total Shared
19




বার্তা সূত্র