Skip to content

মুদুমালাইয়ের ৭০ জন আদিবাসী লান্টানা কামারা আগাছা দিয়ে তৈরি করল হাতির মূর্তি

মুদুমালাইয়ের ৭০ জন আদিবাসী লান্টানা কামারা আগাছা দিয়ে তৈরি করল হাতির মূর্তি

এই ভিডিওটিতে দেখা গেছে যে মুদুমালাইয়ের ৭০ জন আদিবাসী নিজেদের প্রচেষ্টায় লান্টানা কামারা আগাছা থেকে হাতির বিভিন্ন প্রতিলিপি বানিয়েছেন যা শিল্প নৈপুণ্যতা মানুষকে মন্ত্রমুগ্ধ করে তোলে। সুপ্রিয়া সাহু নামে একজন IAS অফিসার এই ভিডিওটি টুইটারে শেয়ার করেছেন এবং বলেছেন যে এই অপূর্ব শিল্পটি বানানোর আগে প্রচুর রিসার্চ এবং অধ্যায়ন করা হয়েছে এবং তারপর এগুলিকে আসল হাতির আদলে তৈরি করা হয়েছে।

লান্টানা কামারা এবং ইনভেসিভ ফ্লোয়ারিং প্ল্যান্ট থেকে তৈরি হাতির আদলের মডেলগুলি বিশেষ করে বন্য প্রাণীদের সুরক্ষার প্রয়োজনীয়তা সম্পর্কে জনসচেতনতা বাড়াবার জন্যই পরিকল্পনা করা হয়েছিল। এই ধরণের ইনভেসিভ ফ্লাওয়ারিং প্যান্টগুলো চেন্নাইয়ের এডওয়ার্ড এলিয়টের সমুদ্র সৈকতে দেশীয় গাছপালা বৃদ্ধিতে বাধা দেয়।

সুপ্রিয়া সাহুর কথা অনুযায়ী হাতির এই মডেলগুলো তৈরি করতে যে সমস্ত আগাছার প্রয়োজন ছিল তা মূদুমালাইয়ের জঙ্গল থেকে নেওয়া হয়েছে। গত ১৩ জানুয়ারী ,শুক্রবার হাতির প্রতিলিপিগুলির উদ্বোধন করতে সেখানে উপস্থিত ছিলেন তামিলনাড়ুর বনমন্ত্রী এম মাথিভেন্থান। বহু রিসার্চ এবং অধ্যায়নের পরেই আসল হাতির মতো এই প্রতিলিপিগুলো গড়ে তোলা হয়েছে।

ওই IAS অফিসার বলেছিলেন “একটি বিশেষজ্ঞ দল আছে যারা আদিবাসীদের পথ দেখিয়েছে এই লান্টানা হাতি তৈরি করতে। চেন্নাইয়ের সমুদ্র সৈকতে ল্যান্টানা হাতির বার্তা হল সম্প্রীতি, ঐক্যতার সঙ্গে বসবাস করা ও সহাবস্থান। এখানে বার্তাটি খুবই স্পষ্ট যে এই গ্রহটি আমাদের সকলের। “

তিনি আরও যোগ করেছিলেন , “মুদুমালাইয়ের ৭০ জন আদিবাসী লান্টানা আগাছা এবং ইনভেসিভ প্রজাতি থেকে এই সুন্দর হাতিগুলি তৈরি করতে কঠোর পরিশ্রম করেছে – এগুলো সারা দেশে বনে ছড়িয়ে আছে এবং বিশেষ করে বায়োডাইভার্সিটির ক্ষেত্রে বেশ বিপত্তিজনক। এখনও পর্যন্ত আমরা তামিলনাড়ুতে ১২০০ হেক্টর বন থেকে লান্টানা, প্রসোপিস এবং অন্যান্য ইনভেসিভ প্ল্যান্ট সরিয়ে এনেছি ” ভিডিওটির ক্যাপশনে লেখা হয়েছে। ভিডিওটি এখানে দেখুন-

Published by:Brototi Nandy

First published:

Tags: Chennai, Elephant, IAS officer, Internet, Twitter, Viral Video



বার্তা সূত্র

সর্বাধিক পঠিত

সর্বশেষ সংবাদ