Skip to content

মির্জা ফখরুলকে আয়নায় চেহারা দেখতে বললেন ওবায়দুল কাদের

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট

ঢাকা: আওয়ামী লীগের সমালোচনা করার আগে আয়নায় নিজের চেহারা দেখতে বিএনপি চেয়ারপারসন মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন ক্ষমতাসীন দলের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের। বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার অসুস্থতা নিয়ে দলটি রাজনীতি করছে বলেও অভিযোগ করেছেন।

শুক্রবার (১০ ডিসেম্বর) নিজ বাসভবনে ব্রিফিংয়ে তিনি এসব কথা বলেন। তিনি বলেন, বেগম জিয়ার চিকিৎসাকে ইস্যু বানিয়ে দেশকে অস্থিতিশীল করে ঘোলা পানিতে মাছ শিকার করাই বিএনপির উদ্দেশ্য।

এ দেশের রাজনীতিতে কে মানবিকতার নজির স্থাপন করেছেন আর কারা রাজনীতিতে শিষ্টাচারহীনতা, অশালীনতার চর্চা করে যাচ্ছে— বিএনপি মহাসচিবের কাছে এমন প্রশ্ন রেখে ওবায়দুল কাদের বলেন, ২১ আগস্ট রাষ্ট্রযন্ত্র ব্যবহার করে শেখ হাসিনাকে হত্যা করতে চেয়েছিল বিএনপি। অথচ তখন সংসদে দাঁড়িয়ে তৎকালীন প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়া বলেছিলেন, গ্রেনেড নাকি শেখ হাসিনা ভ্যানিটি ব্যাগে করে নিয়ে গিয়েছিলেন!

যুবলীগের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে প্রধানমন্ত্রীর দেওয়া বক্তব্যের সমালোচনা করে বিএনপি মহাসচিব বলেছিলেন, কোনো সভ্য দেশের নেতার এমন বক্তব্য নাকি আশা করা যায় না। গ্রেনেড হামলার সময় সংসদে খালেদা জিয়ার ওই বক্তব্যের প্রসঙ্গ টেনের ওবায়দুল কাদের বিএনপি মহাসচিবের কাছে পাল্টা প্রশ্ন রাখেন, ‘এই বক্তব্য কোন সভ্য দেশের নেতার বক্তব্য ছিল?‘ এসময় মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরকে কথা বলার আগে আয়নায় নিজের চেহারা দেখার অনুরোধ জানান ওবায়দুল কাদের।

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আরও বলেন, সন্তানের মৃত্যুর পর বেগম জিয়াকে সান্ত্বনা দিতে গিয়েছিলেন বঙ্গবন্ধুকন্যা শেখ হাসিনা। তখন তারা দরজা বন্ধ করে দিয়েছিলেন। সেই অমানবিক ও অসভ্য আচরণ কোন সভ্য দেশের একটি রাজনৈতিক দলের প্রধান করতে পারেন? এর জবাব কি দেবেন বিএনপি মহাসচিব?

‘গণভবনে চায়ের আমন্ত্রণের বিপরীতে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ কোনো সভ্য দেশের একজন দলপ্রধান করতে পারেন? তার জবাবও কি বিএনপি মহাসচিব দেবেন?,’— জানতে চান আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক।

ওবায়দুল কাদের বিএনপি মহাসচিবকে নিজের দিকে তাকানোর অনুরোধ জানিয়ে বলেন, সংসদ সদস্য নির্বাচিত হয়ে জনগণের ভোটের সঙ্গে প্রতারণা করে যিনি সংসদে যান না, অথচ তার দল সংসদে— এমন দ্বিচারিতার রাজনীতি কে করেছে? কোন সভ্য দেশের রাজনৈতিক দল করতে পারে? আশা করি জবাব দেবেন।

বঙ্গবন্ধুকে সপরিবারে হত্যার মূল কারিগর ও বেনিফিশিয়ারি, যারা শেখ হাসিনাকে হত্যার চেষ্টা করল, গ্রেনেড হামলা চালাল, ১৫ আগস্ট জন্মদিন না হওয়া সত্ত্বেও খালেদা জিয়ার ভুয়া জন্মদিন পালন করে শেখ হাসিনা ও আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীদের অনুভূতিতে আঘাত করল যারা— সেই দল বিএনপির চেয়ারপারসনের জন্য মানবাধিকারের সর্বোচ্চ নজির দেখিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। জিয়াউর রহমান ও খালেদা জিয়ার শাসনামলে কোনো দণ্ডিত, সাজাপ্রাপ্ত আসামি এ ধরনের কোনো সুযোগ পেয়েছেন কি? এ ধরনের কোনো নজির তারা দেখাতে পারবেন কি?

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বিএনপি মহাসচিবের উদ্দেশে বলেন, তাহলে বলুন— এ দেশের রাজনীতিতে কে মানবিকতার নজির স্থাপন করেছেন, আর কারা রাজনীতিতে শিষ্টাচারহীনতা-অশালীনতার চর্চা করে যাচ্ছে?

বিএনপি নেতারা এখন খালেদা জিয়ার জন্য মায়া কান্না করছেন উল্লেখ করে ওবায়দুল কাদের বলেন, অথচ তার মুক্তি ও চিকিৎসার জন্য চোখে পড়ার মতো একটি মিছিলও তারা করতে পারেনি।

সারাবাংলা/এনআর/টিআর



বার্তা সূত্র