Skip to content

মলদ্বীপে থাকা ভারতের সেনা হেলিকপ্টার ‘দখল’ সে দেশের সেনার! ঘোষণা মুইজ্জু সরকারের সেনাকর্তার

test

ভারতের দেওয়া হেলিকপ্টার এবং সেগুলির চালক-কর্মীদের উপর নিয়ন্ত্রণ এখন থেকে থাকবে মলদ্বীপের সেনাবাহিনীর হাতে। বৃহস্পতিবার তেমনটা জানিয়েছে দ্বীপরাষ্ট্রের সেনাই। মলদ্বীপ জাতীয় প্রতিরক্ষা বাহিনীর (এমএনডিএফ) অন্যতম প্রধান ডিরেক্টর কর্নেল আহমদ মুজতবা মহম্মদ একটি সংবাদিক বৈঠকে বক্তৃতা করার সময় জানিয়েছেন, মলদ্বীপ থেকে ভারতীয় সেনা প্রত্যাহারের আলোচনা চলছে। প্রেসিডেন্ট মহম্মদ মুইজ্জুর সরকার ১০ মে-র পর কোনও ভাবেই বিদেশি সেনাকে মলদ্বীপে থাকতে দিতে রাজি নয়। তিনি আরও জানিয়েছেন, আদ্দু শহরে অবস্থানরত ভারতীয় একটি হেলিকপ্টারের বর্তমানে মেরামত চলছে এবং তার পরিবর্তে একটি অন্য হেলিকপ্টার মলদ্বীপে এসেছে। এর পরেই মুজতবা উল্লেখ করেছেন, মুইজ্জু সরকারের পরিকল্পনা অনুযায়ী ভারতীয় সেনারা মলদ্বীপ ছেড়ে চলে যাবে। ভারতীয় অসামরিক নাগরিক এবং হেলিকপ্টারেরগুলির নিয়ন্ত্রণ থাকবে এমএনডিএফ-এর কাছে।

গত সপ্তাহে, ভারত জানিয়েছিল, মলদ্বীপে থাকা ভারতীয় হেলিকপ্টার পরিচালনার জন্য সেনার বদলে প্রযুক্তিবিদদের পাঠানো হয়েছে। তবে ভারতের সেই পদক্ষেপ প্রতিরোধের মুখোমুখি হয়েছিল। মুইজ্জু জানিয়ে দেন, ১০ মে-র পর উর্দিতে বা অসামরিক পোশাকে কোনও ভারতীয় বাহিনী মলদ্বীপে থাকবে না। গত মঙ্গলবার একটি জনসভায় বক্তৃতা করার সময় মুইজ্জু বলেন, ‘‘১০ মে-র পর দেশে কোনও ভারতীয় বাহিনী থাকবে না। উর্দিতেও না, উর্দি ছাড়া অসামরিক পোশাকেও নয়। ভারতীয় বাহিনী এ দেশে কোনও ভাবেই থাকবে না। আত্মবিশ্বাসের সঙ্গে বলছি।’’


উল্লেখযোগ্য, ভারতীয় সেনাকে সরাতে বদ্ধপরিকর মুইজ্জু সরকার সম্প্রতি চিনের সঙ্গে নতুন সম্পর্ক গড়ার কথা ঘোষণা করেছে। মলদ্বীপের সরকার জানিয়েছে ‘বিনামূল্যে এবং নিঃশর্তে’ সামরিক সহায়তা পেতে চিনের সঙ্গে চুক্তি করেছে তারা।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের
Google News,
X (Twitter),
Facebook,
Youtube,
Threads এবং
Instagram পেজ)



সংবাদ সূত্র