Skip to content

‘মন কি বাত’-এর জন্য ৮৩০ কোটি টাকা খরচ করেছে কেন্দ্র, দাবি করতেই আপ নেতার বিরুদ্ধে FIR গুজরাট পুলিশের

‘মন কি বাত’-এর জন্য ৮৩০ কোটি টাকা খরচ করেছে কেন্দ্র, দাবি করতেই আপ নেতার বিরুদ্ধে FIR গুজরাট পুলিশের

প্রধানমন্ত্রীর ‘মন কি বাত’ অনুষ্ঠানের জন্য মোট ৮৩০ কোটি টাকা খরচ করেছে কেন্দ্র। এই অভিযোগ তুলেছেন আম আদমি পার্টির গুজরাট সভাপতি ইসুদান গাধভি। এই দাবির জেরে ইসুদান গাধভির বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেছে গুজরাট পুলিশ।

নিজের টুইটার হ্যান্ডেলে এই দাবি করেছিলেন আপ নেতা। পুলিশের তরফ থেকে জানানো হয়েছে, কোনও প্রাসঙ্গিক তথ্য ছাড়াই এই দাবি করেছেন মিঃ গাধভি। তাই তাঁর বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হয়েছে।

এই মুহূর্তে টুইটটি মুছে ফেলেছেন মিঃ গাধভি। তবে আপের অভিযোগ, রাজ্যে এবং কেন্দ্রে ক্ষমতাসীন ভারতীয় জনতা পার্টি (বিজেপি) এই ধরনের “মিথ্যা” এফআইআরগুলির মাধ্যমে তাদের নেতাদের হয়রানি করছে।

রবিবার (৩০ এপ্রিল) প্রধানমন্ত্রীর ‘মন কি বাত’ অনুষ্ঠানের ১০০তম পর্ব সম্প্রচারিত হয়েছে। মন কি বাত একটি জনসংযোগকারী রেডিও প্রোগ্রাম, যা প্রতি মাসের শেষ রবিবার করেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী।

এর আগে ২৮ এপ্রিল, শুক্রবার, নিজের টুইটারে মিঃ গাধভি দাবি করেন, “মন কি বাত-এর এক একটি পর্বের জন্য খরচ হয় ৮.৩ কোটি টাকা। অর্থাৎ, কেন্দ্র এখনও পর্যন্ত ১০০টি পর্বের জন্য ৮৩০ কোটি টাকা খরচ করেছে। এটা অনেক বেশি। বিজেপি কর্মীদেরই উচিত এই বিপুল খরচের প্রতিবাদ করা। কারণ তারাই বেশিরভাগ এই প্রোগ্রাম শোনেন।”

এই টুইটের প্রেক্ষিতে ২৯ এপ্রিল ভারতীয় দণ্ডবিধি (আইপিসি) এবং তথ্য প্রযুক্তি আইনের প্রাসঙ্গিক ধারায় গাধভির বিরুদ্ধে এফআইআর দায়ের করে আহমেদাবাদ সাইবার ক্রাইম ব্রাঞ্চ।

সাইবার ক্রাইমের সহকারী পুলিশ কমিশনার জেএম যাদব একটি প্রেস কনফারেন্সে জানিয়েছেন, সরকারের হয়ে অভিযোগ দায়ের করেছে পুলিশ। কোনও নির্ভরযোগ্য তথ্য ছাড়াই গাধভি ‘মন কি বাত’ অনুষ্ঠানের বিরুদ্ধে টুইট করছিলেন। তাই ২৯ এপ্রিল তাঁর বিরুদ্ধে সাইবার ক্রাইম ব্রাঞ্চে এফআইআর করা হয়। তাঁকে এখনও গ্রেপ্তার করা হয়নি। আমরা আরও প্রমাণ সংগ্রহ করব, তারপরে পরবর্তী পদক্ষেপ নেব।“

মিঃ গাধভির বিরুদ্ধে আইপিসির যে ধারায় মামলা নথিভুক্ত করা হয়েছে, তার মধ্যে রয়েছে ১৫৩ (দাঙ্গা সৃষ্টির উদ্দেশ্যে উস্কানি দেওয়া), ৫০০ (মানহানি), ৫০৫(১)(b) এবং (c) (ভীতি সৃষ্টির উদ্দেশ্যে গুজব বা ভুয়ো রিপোর্ট প্রকাশ করা এবং রাষ্ট্রের বিরুদ্ধে বা জনসাধারণের শান্তির বিরুদ্ধে অপরাধ করতে জনগণকে প্ররোচিত করা) এবং ৫০৫(২) (শ্রেণীর মধ্যে শত্রুতা, ঘৃণা বা অস্বাভাবিকতা তৈরি বা প্রচার করা)।

তবে গাধভির দাবি অস্বীকার করেছে পিআইবি। পিআইবি ফ্যাক্ট চেক টুইটার হ্যান্ডেল গাধভির টুইটের স্ক্রিনশট পোস্ট করে বলেছে, “এই দাবি বিভ্রান্তিকর। মন কি বাত-এর বিজ্ঞাপনের জন্য এখনও পর্যন্ত মোট ৮.৩ কোটি টাকা খরচ করা হয়েছে, এক একটি পর্বের জন্য নয়।“

বার্তা সূত্র