Skip to content

ভারতে স্থায়ীভাবে বন্ধ হল আফগানিস্তানের দূতাবাস

ভারতে স্থায়ীভাবে বন্ধ হল আফগানিস্তানের দূতাবাস

ভারতে তাদের দূতাবাস স্থায়ীভাবে বন্ধ করে দিল আফগানিস্তান। ভারতের রাজধানী নয়া দিল্লিতে আফগানিস্তানের দূতাবাসের কাজকর্ম সম্পূর্ণ বন্ধ করে দেওয়া হচ্ছে। শুধু আফগান নাগরিকদের প্রয়োজনীয় কাগজপত্র দেওয়া সংক্রান্ত ‘কনসুলার সার্ভিস’ আপাতত চালু থাকবে।

আফগান দূতাবাসের তরফে বিবৃতি দিয়ে জানানো হয়েছে, “ভারত সরকারের ক্রমাগত অসহযোগিতার কারণেই বন্ধ করে দেওয়া হল দিল্লির আফগান দূতাবাস। গত ৩০ সেপ্টেম্বর থেকেই দূতাবাসের সব কাজ বন্ধ করে দেওয়া হয়েছিল। আশা ছিল এই সিদ্ধান্তের পর ভারত সরকার আফগান দূতাবাসকে সাহায্য করবে। কিন্তু তা হয়নি। তাই স্থায়ীভাবে ভারতে আফগানিস্তানের দূতাবাসে তালা লাগিয়ে দেওয়া হচ্ছে।” বিবৃতিতে আরও বলা হয়, অনেকেই মনে করছেন অভ্যন্তরীণ দ্বন্দ্বের কারণে বন্ধ হচ্ছে দূতাবাস। তবে আসল কারণ মোটেই তা নয়।

আফগানিস্তানের বর্তমান তালিবান সরকারকে স্বীকৃতি দেয়নি ভারত। তবে আফগানিস্তানে মানবিক, বাণিজ্যিক ও চিকিৎসা সংক্রান্ত সাহায্য চালু রাখার জন্য কাবুলে ভারতীয় দূতাবাস বন্ধ করেনি দিল্লি। তাৎপর্যপূর্ণ ভাবে, বিবৃতিতে আফগান দূতাবাসের কাজকর্ম বন্ধ করে দেওয়ার যে কারণগুলি তুলে ধরা হয়েছে, তার প্রথমেই রয়েছে, ভারত থেকে যথেষ্ট সহযোগিতা না পাওয়ার বিষয়টি। কূটনীতিকদের ভিসা পুনর্নবীকরণ-সহ গুরুত্বপূর্ণ ক্ষেত্রগুলিতে সাহায্য না মেলায় দূতাবাসের টিমের মধ্যেও হতাশা দেখা দিচ্ছিল।

২০২১ সালের অগাস্টে আফগানিস্তানের ক্ষমতা দখল করেছিল তালিবানরা। কিন্তু, নয়া দিল্লির আফগান দূতাবাসে পূর্ববর্তী আফগান সরকারের নিযুক্ত কর্মীরই ছিলেন। সেখানেও কাজকর্মে কিছু সমস্যা হচ্ছিল।

আফগান সরকার তাদের দেওয়া বিবৃতিতে জানিয়েছে, “আফগানিস্তান ও ভারতের দীর্ঘ সম্পর্ককে মর্যাদা দিয়েই গভীর অনুতাপ ও হতাশার সঙ্গে নয়া দিল্লির আফগান দূতাবাস বন্ধের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।”

সূত্র: ভয়েজ অব আমেরিকা