Skip to content

ভারতীয় মুসলমানদের নির্মূলের প্রস্তাব নৃশংস মানসিকতার বর্হিপ্রকাশ

ভারতীয় মুসলমানদের নির্মূলের প্রস্তাব নৃশংস মানসিকতার বর্হিপ্রকাশ

ভারতের কিছু উগ্র গোষ্ঠীর নেতা হিন্দু রাষ্ট্র গড়ার লক্ষ্যে সংখ্যালঘুদের তথা মূলত ভারতের মুসলমানদেরকে জাতিগত ভাবে নির্মূলের আহ্বান জানানোর ঘটনায় তীব্র প্রতিবাদ ও নিন্দা জানিয়েছেন বাংলাদেশ মুসলিম লীগ নেতৃবৃন্দ। নেতৃবৃন্দ বলেন, ভারতে সংখ্যালঘু মুসলমানদের নির্মূলের আহবান নৃশংস মানসিকাতর বর্হিপ্রকাশ।

আজ শনিবার বেলা ১১ টায় বিশিষ্ঠ ইসলামী চিন্তাবিদ, বাংলাদেশ মুসলিম লীগের সাবেক সভাপতি আলহাজ মোহাম্মদ জমির আলীর ১৭তম মৃত্যুবার্ষিকীতে বাংলাদেশ মুসলিম লীগ ও জমির আলী স্মৃতি সংসদের যৌথ উদ্যোগে স্মৃতি সংসদের সভাপতি ও বাংলাদেশ মুসলিম লীগের মহাসচিব কাজী আবুল খায়েরের সভাপতিত্বে পল্টনস্থ কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এক আলোচনা ও দোয়া মাহফিলে নেতৃবৃন্দ এসব কথা বলেন।

সভায় বক্তব্য রাখেন, মুসলিম লীগের নির্বাহী সভাপতি আব্দুল আজিজ হাওলাদার, স্থায়ী কমিটির সদস্য আতিকুল ইসলাম, আনোয়ার হোসেন আবুড়ী, ডেমেক্রেটিক লীগের মহাসচিব সাইফুদ্দিন মনি, দেশপ্রেমিক নাগরিক পার্টির সভাপতি মো. আহছান উল্লাহ শামীম, বাংলাদেশ কংগ্রেসের মহাসচিব মো. ইয়ারুল ইসলাম, বাংলাদেশ মুসলিম সমাজের চেয়ারম্যান মো. মাসুদ হোসেন, পিএনপি চেয়ারম্যান ফিরোজ মো. লিটন, বিএনজে চেয়ারম্যান এইচ সিদ্দিকুর রহমান খোরশেদ, বাবেস সভাপতি মো. হাসান, বাংলাদেশ মেস সংঘের সেক্রেটারী আয়েতউল্যাহ, ইসলামী ঐক্য প্রক্রিয়ার সমন্বয়কারী অধ্যাপক বাজলুর রহমান আমিনী ও জমির আলী পুত্র আক্তার জমির রাসেল।
নেতৃবৃন্দ বলেন, হিন্দু রাষ্ট্র গড়তে মুসলমানদের নির্মূল করার মানসিকতা লালন করেন এমন একটা বৃহৎ গোষ্ঠির উপস্থিতি নিশ্চিত জেনেই তৎকালীন সময়ের মুসলিম লীগের দূরদর্শী নেতৃবৃন্দ লাহোর প্রস্তাবের ভিত্তিতে মুসলমানদের জন্য আলাদা আবাসভূমি প্রতিষ্ঠা করে মুসলমানদের স্বাধীনতার স্বাদ এনে দিয়েছিলেন। ভারতের ক্ষমতাসীন দল বিজেপি নেতৃবৃন্দের উপস্থিতিতেই উগ্রপন্থী হিন্দুনেতাদের এহেন ধৃষ্ঠতাপূর্ণ মন্তব্য এ ঘটনার সবচেয়ে বিপদজনক দিক। ইয়াতি নরসিংহানন্দদের এহেন পরিকল্পনা বা আহ্বানের সাথে বিজেপির ইন্ধন অথবা সমর্থন সম্পর্কে বিজেপিকে স্পষ্ট মতামত ও অবস্থান ব্যক্ত করতে হবে। হিন্দু সন্ন্যাসী নামধারী এরকম উগ্রপন্থীরা ধর্মীয় সম্প্রীতি, বিশ^ শান্তি ও মানবতার জন্য চরম হুমকি বিধায় এদের বিরুদ্ধে দ্রুত আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া ভারত সরকার ও জাতিসংঘসহ আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের অত্যাবশ্যক দায়িত্ব বলে মন্তব্য করেছেন নেতৃবৃন্দ। সভা শেষে জমির আলী এবং সুগন্ধা নদীতে লঞ্চে অগ্নিকান্ডে নিহতদের রূহের মাগফিরাত এবং আহতদের দ্রুত সুস্থতা কামনা করে দোয়া করা হয়।

 



বার্তা সূত্র