বড়দিন উৎসবে সরকারি বরাদ্দে অনিয়ম

বড়দিন উৎসবে সরকারি বরাদ্দে অনিয়ম

খ্রিষ্টানদের ধর্মীয় প্রতিষ্ঠান গির্জার অস্তিত্ব না থাকলেও গাইবান্ধায় বড়দিনের উৎসব পালনে দেওয়া হয়েছে সরকারি বরাদ্দ। আবার খ্রিষ্টান-অধ্যুষিত একটি উপজেলায় তালিকায় নাম থাকলেও বরাদ্দের অর্থ না পাওয়ার অভিযোগ উঠেছে। গির্জার সংখ্যা নিয়ে সংশ্লিষ্ট সংগঠনের নেতারাও বিস্মিত।

বড়দিন উদযাপনের জন্য সুন্দরগঞ্জ, পলাশবাড়ি, সদর ও গোবিন্দগঞ্জ উপজেলা প্রশাসন থেকে প্রাপ্ত ৬১টি গির্জার মধ্যে ৬০টি গির্জায় বরাদ্দ দেয় জেলা প্রশাসন। সুন্দরগঞ্জের তালিকায় গির্জার সভাপতিদের নামের পাশে ইসলাম লেখা। সুন্দরগঞ্জের বামনডাঙ্গায় গিয়ে সাত গির্জার একটিরও অস্তিত্ব পাওয়া যায়নি।

তবে একটি বাড়িতে দুটি গির্জার সাইনবোর্ড মিললেও ধর্মান্তরিত হয়ে খ্রিষ্টান হয়েছেন দাবি করে বরাদ্দ না পাওয়ার অভিযোগ তাদের। আর স্থানীয় একজন নিজের বাড়িকেই গির্জা হিসেবে দাবি করলেন।

অন্যদিকে গাইবান্ধা পৌরসভায় গির্জা না থাকলেও কয়েকটি খ্রিষ্টান পরিবারকে দেওয়া হয় চারটি গির্জার নামে সরকারি বরাদ্দ। পলাশবাড়িতে একমাত্র খ্রিষ্টান পরিবারকেও গির্জার নামে দেওয়া হয় বড়দিন উদযাপনের টাকা। তবে খ্রিষ্টান-অধ্যুষিত গোবিন্দগঞ্জে ৪৯ গির্জার তালিকায় নাম থাকলেও টাকা না পাওয়ার অভিযোগ করেন কেউ কেউ।

স্থানীয় একজন বলেন, আমরা বাড়িতে গির্জা পরিচালনা করি। তবে গির্জা এখনো নির্মাণ হয়নি।

এদিকে গির্জার সংখ্যা নিয়ে হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিষ্টান ঐক্য পরিষদের সভাপতি দিলীপ কুমার রায় বিষ্ময় প্রকাশ করেন। তিনি বলেন, আমাদের সংগঠনটিকে বরাদ্দ-সংক্রান্ত কোনো তথ্য জানায়নি। তবে যারা বরাদ্দ দিয়েছে, তারা হয়তো ব্যক্তিগতভাবে দিয়েছে।

তবে বড়দিন উদযাপনে বরাদ্দ নিয়ে এমন অব্যবস্থাপনা জানার পর ব্যবস্থা নেওয়ার আশ্বাস দেন জেলা প্রশাসক আবদুল মতিন। তিনি বলেন, আমরা সংশ্লিষ্টদের থেকে তথ্য নিয়ে তালিকা সংগ্রহ করে মন্ত্রণালয়ে পাঠাই। পরে মন্ত্রণালয় থেকে বরাদ্দ এলে আমরা সেটা তাদের দিয়ে দেই। যদি এতে কোনো অব্যবস্থাপনা হয়ে থাকে, তাহলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করব।

গাইবান্ধার চার উপজেলায় ৬০টি গির্জার প্রতিটিতে ২২ হাজার টাকা করে বরাদ্দ দেয় জেলা প্রশাসন। উপজেলা প্রশাসনের দাবি, কয়েক বছর ধরে চলে আসা তালিকা ধরেই এবারও বরাদ্দ দেওয়া হয়।

সূত্র: সময় টিভি

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।