Skip to content

বিএনপির আন্দোলনকে সমর্থন করতে ১২ দলীয় জোটের আত্মপ্রকাশ

বিএনপির আন্দোলনকে সমর্থন করতে ১২ দলীয় জোটের আত্মপ্রকাশ

বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল বিএনপি পরিকল্পিত, সরকারবিরোধী যুগপৎ আন্দোলনে যোগ দিতে, ১২টি দলের একটি নতুন রাজনৈতিক জোট আত্মপ্রকাশ করেছে। বৃহস্পতিবার (২২ ডিসেম্বর) সকালে, রাজধানী ঢাকার জাতীয় প্রেসক্লাবে এক সংবাদ সম্মেলনে জোটের আত্মপ্রকাশ ঘোষণা করা হয়। এর আগে, এই ১২টি দল বিএনপি নেতৃত্বাধীন ২০ দলীয় জোটের অংশ ছিল।

সংবাদ সম্মেলনে জাতীয় পার্টির একাংশের (কাজী জাফর) চেয়ারম্যান মোস্তফা জামাল হায়দার নতুন এই জোট গঠনের ঘোষণা দেন। নতুন জোটের শরিক দলগুলো হলো; জাতীয় পার্টি (কাজী জাফর), বাংলাদেশ কল্যাণ পার্টি, বাংলাদেশ লেবার পার্টি, বাংলাদেশ জাতীয় দল, এনডিপি, এলডিপি (সেলিম), মুসলিম লীগ, জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম, ইসলামী ঐক্যজোট, জাগপা, ইসলামিক পার্টি, বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল এবং সাম্যবাদী দলের একাংশ।

মোস্তফা জামাল হায়দার বলেন, “আমি দৃঢ়ভাবে বলতে পারি দেশের সবচেয়ে বড় বিরোধী দল বিএনপির সঙ্গে আমাদের বোঝাপড়া ও ঐক্য আগের মতোই থাকবে।” তিনি বলেন, “ভুল বোঝাবুঝির কোনো সুযোগ নেই এবং আমরা সবাই একযোগে আন্দোলনের পথে এগোচ্ছি।”

নবগঠিত ১২ দলীয় জোটের ঘোষণাপত্র পাঠ করেন লেবার পার্টির চেয়ারম্যান মোস্তাফিজুর রহমান। তিনি বলেন, “আমরা গণতন্ত্র ও জনগণের ভোটাধিকার পুনরুদ্ধারে চলমান সরকারবিরোধী আন্দোলনে অংশগ্রহণের সিদ্ধান্ত নিয়েছি এবং আমরা ১২ দলীয় জোট হিসেবে স্বীকৃতি পাব।” তিনি আরও বলেন, “১২ দলীয় জোট বিএনপির ২৭ দফা রূপরেখা, রাষ্ট্রের কাঠামোগত সংস্কার-এর সঙ্গে একাত্মতা প্রকাশ করে।”

কল্যাণ পার্টির চেয়ারম্যান সৈয়দ মুহাম্মদ ইব্রাহিম বলেন, “বিলুপ্তির আগে বিএনপি চেয়ারপার্সনের কার্যালয়ে ২০-দলীয় জোটের শেষ বৈঠক হয়েছিল ২০২২ সালের ৯ ডিসেম্বর। যেখানে জোটের নেতারা পূর্বের নাম ২০-দল ব্যবহার না করার সিদ্ধান্ত নেন। ২০ দলীয় জোট গঠিত হয়েছিলো ২০১২ সালের ১৮ এপ্রিল।”

১২-দলীয় জোটে দুটি নিবন্ধিত রাজনৈতিক দল রয়েছে। একটি বাংলাদেশ কল্যাণ পার্টি এবং অন্যটি বাংলাদেশ মুসলিম লীগ।সৈয়দ ইব্রাহিম বলেন,“অন্যান্য দল নিবন্ধনের জন্য নির্বাচন কমিশনে তাদের আবেদন করেছে। আশা করা হচ্ছে, একটি ইতিবাচক ফলাফল আসবে।”

সৈয়দ মুহাম্মদ ইব্রাহিম আরও বলেন, “আমরা বিএনপির সকল কর্মসূচিতে যোগ দেব এবং যুগপৎ আন্দোলনের অংশ হিসেবে ৩০ ডিসেম্বর গণ মিছিল বের করব। আমরা দুপুর ২টার দিকে বিজয় নগর এলাকায় সমবেত হব।”

সূত্র: ভয়েজ অব আমেরিকা