বাংলাদেশ যা চায় তা করতে ভারত প্রস্তুত আছে: দোরাইস্বামী

ঢাকায় ভারতীয় হাইকমিশনার বিক্রম কুমার দোরাইস্বামী বলেছেন, ‘বাংলাদেশ আমাদের কাছে যা চায়, আমরা তার যে কোনো কিছু বাংলাদেশে করতে প্রস্তুত আছি।’ গতকাল মঙ্গলবার সকালে ঢাকায় ভারতীয় হাইকমিশনে অনুষ্ঠিত দেশটির প্রজাতন্ত্র দিবসের অনুষ্ঠানের পর সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি এ কথা বলেন।

বিক্রম কুমার দোরাইস্বামী আরও বলেন, ‘ভারত দ্রুত সময়ের মধ্যে বাংলাদেশকে টিকা দিতে অঙ্গীকারবদ্ধ। এ ছাড়া প্রতিবেশী দেশগুলোকে আমরা যত দ্রুত সম্ভব টিকা সরবরাহ করতে চাই।’ তিনি বলেন, ‘ভারত শুধু একা করোনা প্রতিরোধের ক্ষমতা বাড়াতে পারবে না, যদি বাংলাদেশ, নেপাল, ভুটানসহ নিকট প্রতিবেশী দেশগুলোরও ক্ষমতা বৃদ্ধি না হয়।’

ভারতীয় হাইকমিশনার বলেন, ‘ভারত ও বাংলাদেশকে একসঙ্গে উন্নতি করতে হবে। মহামারির এই সংকটেও প্রতিবেশীর সঙ্গে যতটা সম্ভব নিবিড়ভাবে এই সমস্যা সমাধানে সচেষ্ট আছে ভারত। আর এই নিকট প্রতিবেশীর মধ্যে বাংলাদেশ বিশেষ করে গুরুত্বপূর্ণ। বাংলাদেশ প্রথম দেশ, যেখানে ভারত সরকার নিজস্ব তহবিলে কেনা টিকা পাঠিয়েছে। পাশাপাশি বাণিজ্যিকভাবেও টিকা সরবরাহ করছে।’

ভারতে উদ্ভাবিত টিকা বাংলাদেশে পাঠানো হবে কি না জানতে চাইলে দোরাইস্বামী বলেন, ‘আমরা বাংলাদেশে ভারত বায়োটেকের টিকার ট্রায়াল চালাতে চাই। এ জন্য বাংলাদেশের সম্মতির অপেক্ষায় আছি। এরপর তথ্য বিশ্লেষণ করে অনুমতি পাওয়ার বিষয় আছে।’

সকালে ঢাকায় ভারতীয় হাইকমিশনে যথাযথ মর্যাদায় ৭২তম ভারতীয় প্রজাতন্ত্র দিবসের আনুষ্ঠানিকতা সম্পন্ন হয়। সকাল ৯টায় বারিধারার ভারতীয় চ্যান্সেরি কমপ্লেক্সে ভারতীয় হাইকমিশনার পতাকা উত্তোলনের মাধ্যমে প্রজাতন্ত্র দিবসের অনুষ্ঠানের সূচনা করেন। এরপর ভারতের জাতীয় সংগীত খোলা কণ্ঠে সম্মিলিতভাবে গেয়ে ওঠেন ভারতীয় হাইকমিশনের কূটনীতিক, কর্মকর্তাসহ আগত ভারতীয় নাগরিকেরা। বিক্রম দোরাইস্বামী প্রজাতন্ত্র দিবস উপলক্ষ্যে ভারতের রাষ্ট্রপতির বাণী পাঠ করেন।

Share on facebook
Share on twitter
Share on whatsapp
Share on email