Skip to content

পাকিস্তানের পুলিশ স্টেশনে জঙ্গি হামলা, অস্ত্র লুট

পাকিস্তানের দক্ষিণ ওয়াজিরিস্তানের ওয়ানায় একটি পুলিশ স্টেশনে হামলা চালিয়ে অস্ত্র ও গোলাবারুদ লুট করে নিয়ে গেছে সশস্ত্র জঙ্গিরা।

বুধবার (২১ ডিসেম্বর) স্থানীয় পুলিশের বরাত দিয়ে পাকিস্তানের সংবাদমাধ্যম ডন এ তথ্য জানিয়েছে।

রেহমান ওয়াজির নামের এক পুলিশ সদস্য বলেন, গত সোমবার দিবাগত রাত ১টার দিকে জঙ্গিরা রকেট লাঞ্চার ও ভারী অস্ত্রশস্ত্রে সজ্জিত হয়ে পুলিশ স্টেশনটিতে প্রবেশ করে। এসময় ওয়াজির পুলিশ স্টেশনের ভেতরে অবস্থান করছিলেন।

তিনি ডনকে বলেন, সামনের গেট উড়িয়ে দিয়ে প্রায় ৫০ জন জঙ্গি স্টেশনে প্রবেশ করেন।

থানা পুলিশের আরেক কর্মকর্তা বলেন, স্টেশন হাউস কর্মকর্তাসহ ২০ জন পুলিশ সদস্য জঙ্গিদের কিছু সময়ের জন্য প্রতিহত করেছিল। কিন্তু পরে জঙ্গিরা স্টেশনে থাকা সব পুলিশ সদস্যকে জিম্মি করে।

এ ঘটনায় সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার হওয়া ভিডিও-তে রাতের অন্ধকারে স্টেশনে রকেট ও গ্রেনেডের প্রচণ্ড বোমাবর্ষণ দেখা গেছে।

হামলা শেষে জঙ্গিরা অস্ত্রশস্ত্র লুট করে একটি পুলিশ ভ্যান নিয়ে পালিয়ে যায়। স্থানীয় পুলিশ বলছে, জঙ্গিরা শুধু ৮টি একে-৪৭ রাইফেল নিয়ে পালিয়েছে।

সূত্রের বরাত দিয়ে ডন জানিয়েছে, হামলায় এক পুলিশ কনস্টেবল আহত হয়েছে। ইলিয়াস নামে ওই পুলিশ কনস্টেবলকে চিকিৎসার জন্য ওয়ানা হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। অন্যদিকে একজন জঙ্গি সদস্যও নিহত হয়েছেন।  পাকিস্তানের আধা সামরিক বাহিনী ফ্রন্টিয়ার কর্পস (এফসি)-এর সঙ্গে গোলাগুলিতে ওই সন্দেহভাজন জঙ্গি নিহত হয়েছেন।

পুলিশ বলেছে, আশপাশের এলাকা থেকেও তাদের সদস্যদের এনে ওয়ানায় মোতায়েন করা হয়েছে। পুলিশ স্টেশনটিতে ১০০ জনের মতো পুলিশ সদস্য বর্তমানে অবস্থান করছেন।

বাংলাদেশ সময়: ১৫২৮ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ২১, ২০২২
এমএইচএস

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।



বার্তা সূত্র