Skip to content

পটুয়াখালীতে সংঘর্ষ: আওয়ামী লীগের মামলা দায়ের, অভিযুক্ত ৪৫০ জন

চট্টগ্রামে ছাত্রলীগ নেতা সুদীপ্ত হত্যা: আওয়ামী লীগ নেতাসহ ২৪ জনের বিচার শুরুর আদেশ

বাংলাদেশের পটুয়াখালী জেলা সদরে বিএনপির সঙ্গে সংঘর্ষের ঘটনায়, জেলা যুবদল-ছাত্রদল-শ্রমিকদল সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকসহ ৪৫০ জনকে অভিযুক্ত করে, আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে দুটি মামলা দায়ের করা হয়েছে। শনিবার (২০ মে) ও রবিবার (২১ মে) দায়ের করা মামলা দুটির বাদী দু’জন আওয়ামী লীগকর্মী।

জানা গেছে, শনিবার (২০ মে) রাতে রায়হান হোসেন নামে একজন থানায় একটি লিখিত অভিযোগ করেন। অভিযোগে বলা হয়, শনিবার পৌরসভা এলাকার মুসলিমপাড়া মোড়ে আওয়ামী লীগের শান্তি সমাবেশ চলাকালে বিএনপির লোকজন তাদের ওপর অতর্কিত হামলা চালায় এবং বাসাবাড়ি ও দোকানপাট ভাঙচুর করে ক্ষতিসাধন করে। হামলায় বেশ কয়েকজন নেতাকর্মী আহত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়। মামলায় জেলা শ্রমিকদলের সাধারণ সম্পাদক মনির মুন্সিকে প্রধান অভিযুক্ত উল্লেখ করে ২৯ জন নেতাকর্মীর নামে মামলা করা হয়। এই মামলায় অজ্ঞাত অভিযুক্ত হিসেবে দেখানো হয়েছে আরো ২০০ জনকে।

অপরদিকে, একই থানায় শনিবার (২১ মে) দায়ের করা আরেকটি মামলার বাদী জেলা যুবলীগ-এর যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক নাসির উদ্দিন। তিনি বলেছেন, মুসলিমপাড়া মোড়ে যুবলীগের শান্তি সমাবেশ চলাকালে যুবদল হামলা চালিয়ে ক্ষতিসাধন করে। এ ঘটনায় জেলা যুবদলের সভাপতি মনিরুল ইসলাম লিটনকে প্রধান অভিযুক্ত করে ১৬ জনের নাম উল্লেখ করে মামালা করা হয়। অজ্ঞাত অভিযুক্ত হিসেবে দেখানো হয় আরো ২৫০ জনকে।

পটুয়াখালী সদর থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. মনিরুজ্জামান জানিয়েছেন, দুজন বাদীই একই ধরণের অভিযোগ এনেছেন। ঘটনার প্রাথমিক সত্যতা থাকায় মামলা গ্রহণ করা হয়েছে।

মামলার বিষয়ে জেলা যুবদলের সভাপতি মনিরুল ইসলাম লিটন বলেন, বিএনপির পক্ষ থেকেও আওয়ামী লীগের হামলাকারীদের বিরুদ্ধে থানায় মামলা করা হবে। থানা মামলা না নিলে, আদালতের দ্বারস্থ হবেন বলে জানান তিনি।

উল্লেখ্য, সরকারের পদত্যাগের দাবিতে শনিবার সকালে পটুয়াখালী জেলা বিএনপির কার্যালয়ের সামনে এক সমাবেশ চলাকালে সংঘর্ষ হয়। উভয় দলের নেতাকর্মীদেরকে ছত্রভঙ্গ করতে টিয়ারসেল নিক্ষেপ করে পুলিশ।এসময় জেলা ছাত্রদলের সভাপতি উজ্জ্বল তালুকদারসহ বিএনপি ও আওয়ামী লীগের ৩০ নেতাকর্মী আহত হন।

সূত্র: ভয়েজ অব আমেরিকা