Skip to content

পঞ্চায়েতের লোকসভা ভোটেও স্বতন্ত্র লড়াই! জঙ্গলমহলে ৪ আসনে প্রার্থী দেবে কুড়মি সমাজ

বাংলা হান্ট ডেস্কঃ পঞ্চায়েত ভোটে আলাদাভাবে লড়াই করেছিল। এবার চব্বিশের লোকসভা নির্বাচনেও (Lok Sabha Election 2024) আলাদা লড়াইয়ের সুর শোনা গেল কুড়মি সমাজের (Adivasi Kurmi Samaj) গলায়। রবিবার ব্রিগেডের জনগর্জন সভা থেকে আসন্ন লোকসভা ভোটের প্রার্থী তালিকা প্রকাশ করেছে তৃণমূল কংগ্রেস। একইদিনে প্রকাশ্য সমাবেশ থেকে আলাদা লড়াইয়ের কথা ঘোষণা করলো কুড়মি সমাজ। কোন কোন আসনে তাঁরা প্রার্থী দেবে ঘোষণা করেছে তারা।

কুড়মি সমাজের (Kurmi Samaj) কথায়, আদিবাসী তালিকাভুক্ত মানুষদের দাবি আদায়ের কারণে এবার সরাসরি ভোটে লড়তে চায় তারা। গতকাল বিকেলে প্রকাশ্য সমাবেশ থেকে স্বতন্ত্র লড়াইয়ের কথা ঘোষণা করে তারা। আদিবাসী কুড়মি সমাজের প্রধান নেতা অজিত প্রসাদ মাহাতোর জানান, আসন্ন লোকসভা নির্বাচনে জঙ্গলমহলের (Jangalmahal) ৪টি আসনে প্রার্থী দেবে তারা। সেই সঙ্গেই ঝাড়খণ্ডেও বেশ কয়েকটি আসনে লড়বেন বলে জানিয়েছেন। তবে ওড়িশার ভোট বয়কট করার ডাক দিয়েছে কুড়মি সমাজ।

প্রসঙ্গত, গত পঞ্চায়েত ভোটেও কোনও রাজনৈতিক দলকে কুড়মি সমাজ সমর্থন করেনি। জঙ্গলমহলের নানান স্থানে কুড়মি এবং তার সহযোগী জনজাতি নির্দল প্রার্থীদের পাশে দাঁড়িয়েছিল আদিবাসী কুড়মি সমাজ সহ একাধিক কুড়মি সংগঠন। দাবি আদায়ের লক্ষ্যে অতীতে বেশ কয়েকবার রেল অবরোধ কর্মসূচি পালন করেছেন তারা। যে কারণে দক্ষিণ-পূর্ব রেলের আদ্রা-চান্ডিল শাখায় ট্রেন চলাচল কয়েকদিনের জন্য ব্যাহত হয়েছিল।

আরও পড়ুনঃ তিনি একা নন, দ্রৌপদী মুর্মুকে ভোট দিয়েছিলেন দেবও! ভেতরকার তথ্য ‘ফাঁস’ করলেন অর্জুন সিং

পুরুলিয়ায় আদিবাসী কুড়মি সমাজের ভিত বেশ পোক্ত। আসন্ন লোকসভা নির্বাচনে তারা স্বতন্ত্র লড়াই করতে তৃণমূল, বিজেপির ওপর চাপ সৃষ্টি হতে পারে বলে অনুমান ওয়াকিবহাল মহলের । কুড়মি সমাজের তরফ থেকে জানানো হয়েছে, জঙ্গলমহলের মেদিনীপুর, পুরুলিয়া, ঝাড়গ্রাম এবং বাঁকুড়া আসনে প্রার্থী দেবে তারা। এছাড়া ঝাড়খণ্ডের জামশেদপুর, ধানবাদ, গিরিডি, হাজারিবাগ ও রাঁচিতেও প্রার্থী দেওয়ার কথা জানিয়েছে।

আদিবাসী কুড়মি সমাজের মূল মানতা তথা প্রধান নেতা অজিত প্রসাদ মাহাতো এদিন বলেন, তাঁদের বহুদিনের দাবি পূরণের জন্য কোনও রাজনৈতিক দলই কিছু করেনি। নিজেদের সেই দাবির জন্য এবার লোকসভা ভোটে স্বতন্ত্র লড়াই করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে তারা। সেই সঙ্গে যে আন্দোলন কর্মসূচি চলছে সেটা চালিয়ে যাওয়া হবে বলেও জানান তিনি। আদিবাসী কুড়মি সমাজের কথায়, জঙ্গলমহলের যে ৪টি কেন্দ্র থেকে তারা প্রার্থী দেবে সেখানে যদি কোনও রাজনৈতিক দলের প্রার্থী হিসেবে কুড়মি জনজাতির কোনও প্রার্থী দাঁড়ায় তাহলে তাঁর বাড়ি গিয়ে প্রার্থীপদ প্রত্যাহারের অনুরোধ করা হবে।

বার্তা সূত্র