Skip to content

নির্বাচনে মানবাধিকার লঙ্ঘনের ঘটনা তদারকিতে মনিটরিং সেল গঠনের দাবি

নির্বাচনকালীন মানবাধিকার লঙ্ঘনের ঘটনা তদারকির জন্য জাতীয় মানবাধিকার কমিশন কর্তৃক একটি মনিটরিং সেল গঠনসহ পাঁচদফা দাবি জানিয়েছে বাংলাদেশ হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিষ্টান ঐক্য পরিষদ।

বৃহস্পতিবার বাংলাদেশ হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিষ্টান ঐক্য পরিষদের পক্ষ থেকে কমিশনের কাছে দেওয়া স্মারকলিপিতে এসব দাবি তুলে ধরা হয়েছে।

অন্যান্য দাবি সমূহের মধ্যে রয়েছে, ধর্মীয়-জাতিগত সংখ্যালঘু নির্বাচনী এলাকাগুলোকে ঝু্ঁকিপূর্ণ স্থান হিসেবে চিহ্নিত করে এতে বিশেষ নজরদারি ও প্রতিরোধমূলক ব্যবস্থা গ্রহণে সংশ্লিষ্টদের নির্দেশনা দেওয়া, নির্বাচন পূর্বাপর সময়ে সাম্প্রদায়িক নির্যাতন ও মানবাধিকার লংঘনের ঘটনা ঘটলে কমিশন কর্তৃক তদন্ত করা; স্থানীয় প্রশাসনকে প্রয়োজনীয় নির্দেশনা প্রদান প্রভৃতি।

এ সময় কমিশনের চেয়ারম্যান ড. কামাল উদ্দিন আহমেদ বলেন, আসন্ন দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে সামনে রেখে ধর্মীয় ও জাতিগত সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের নিরাপত্তার বিষয়ে জাতীয় মানবাধিকার কমিশন অত্যন্ত সচেতন রয়েছে।

তিনি বলেন, এ বিষয়ে কমিশন নিবিড়ভাবে কাজ করছে। কেননা, ভোটাধিকারই মানবাধিকার।

তিনি বলেন, নির্বাচনপূর্ব, নির্বাচনকালীন ও নির্বাচন পরবর্তী সময়ে সাম্প্রদায়িক নির্যাতন ও মানবাধিকার লংঘনের ঘটনা যাতে না ঘটে এবং সকল ধর্মের জনগণ যাতে অবাধ ও সুষ্ঠুভাবে নির্বাচনে অংশ নিতে পারে সে ব্যাপারে সোচ্চার থাকবে কমিশন। এ ব্যাপারে নির্বাচন কমিশনের সাথে দ্বিপাক্ষিক একটি আলোচনা সভার আয়োজন করার উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে বলেও জানান তিনি। পাশাপাশি, নির্বাচন পরবর্তী সময়ে যে কোনো অনাকাঙ্ক্ষিত পরিস্থিতি ও নির্যাতনের ঘটনা প্রতিরোধে স্থানীয় প্রশাসন, আইন শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীসহ সংশ্লিষ্ট সকলকে প্রয়োজনীয় নির্দেশনা প্রদানের উদ্যোগ ইতোমধ্যে গ্রহণ করা হয়েছে।

বাংলাদেশ হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিষ্টান ঐক্য পরিষদের ৭ সদস্যের প্রতিনিধি দল মানবাধিকার কমিশনের চেয়ারম্যানের সঙ্গে সাক্ষাৎ করেন। সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক অ্যাড. রাণা দাশগুপ্ত আসন্ন নির্বাচনকে কেন্দ্র করে জাতিগত ও ধর্মীয় সংখ্যালঘুর মানবাধিকার সুরক্ষার লক্ষ্যে পদক্ষেপ গ্রহণে কমিশনের চেয়ারম্যানের হাতে স্মারকলিপি তুলে দেন। এ সময় উপস্থিত ছিলেন জাতীয় মানবাধিকার কমিশনের সম্মানিত সার্বক্ষণিক সদস্য সেলিম রেজা এবং কমিশনের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা।

ঐক্য পরিষদের পক্ষে নির্মল রোজারিও, ভিক্ষু সুনন্দপ্রিয়, রঞ্জন কর্মকার, মনীন্দ্র কুমার নাথ, জয়ন্ত কুমার দেব ও ব্যারিস্টার প্রশান্ত ভূষণ বড়ুয়া উপস্থিত ছিলেন।



বার্তা সূত্র