Skip to content

দাম্পত্য কলহে বিষপানে যুবকের আত্মহত্যা 

উদ্ধারকৃত মরদেহ (ফাইল ছবি)

চট্টগ্রামের চন্দনাইশে দাম্পত্য কলহের জেরে বিষপান করে নুরুদ্দীন (৩০) নামে এক যুবক আত্মহত্যা করেছেন বলে জানা গেছে। রবিবার (২ অক্টোবর) বিকাল ৫টার দিকে উপজেলার ধোপাছড়ি ইউনিয়নের ৯নং ওয়ার্ডের চিড়িংঘাটা এলাকার নজরুলের ভাড়া বাসায় ঘটনাটি ঘটে।

বিষপান করে ছটফট করতে থাকলে পরিবারের লোকজন তাকে উদ্ধার করে প্রথমে দোহাজারী হাসপাতালে নিয়ে আসলে তার অবস্থার অবনতি হওয়ায় সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে রেফার করে। চমেক হাসপাতাল নেওয়ার পথে তার মৃত্যু ঘটে। নিহত নুরুদ্দীন ওই এলাকার আবুল বশরের ছেলে।

বিষয়টি নিশ্চিত করে চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ (চমেক) হাসপাতালের পুলিশ ফাঁড়ির সহকারী উপ পরিদর্শক (এএসআই) আলাউদ্দিন তালুকদার জানান, বিষপান করে মৃত্যুবরণকারী নুরুদ্দীন নামে এক যুবকের লাশ চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের মর্গে আছে। নিহতের ময়না তদন্ত শেষে লাশ পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হবে।

এ বিষয়ে মুঠোফোনে যোগাযোগ করা হলে ধোপাছড়ি পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ পুলিশ পরিদর্শক মো. গোলাম আপছার বলেন, নিহত নুরুদ্দীন বিদেশ থেকে আসার পর থেকে আর্থিক সংকটে পড়ে যায়। পারিবারিক অভাব অনটনের কারণে প্রায়ই স্ত্রীর সাথে ঝগড়া হতো তার। ঘটনার আগের দিন সে স্ত্রীকে দুই দফা মারপিট করলে তার স্ত্রী বাবার বাড়ি চলে যাওয়ার জন্য ভাই-বোনদের খবর দেয়। তার স্ত্রীর ভাই-বোন আসার পর স্থানীয়ভাবে বিষয়টির মীমাংসা করার চেষ্টা হলেও সমঝোতা না হওয়ায় নুরুদ্দীনের স্ত্রী তার বাবার বাড়ির দিকে রওয়ানা হয়।

তিনি আরও বলেন, বিষয়টি সইতে না পেরে রাগ-ক্ষোভে ঘরে এসে নুরুদ্দীন বিষপান করে। পরে তার স্ত্রীর বোনের স্বামী নজরুল ও স্থানীয়রা নুরুদ্দীনকে দোহাজারী হাসপাতালে নিয়ে যায়। সেখানে অবস্থার অবনতি হলে চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল (চমেক) রেফার করে। চমেক নেওয়ার পথে নুরুদ্দীনের মৃত্যু হয়।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে চন্দনাইশ থানার অফিসার ইনচার্জ মো. আনোয়ার হোসেন বলেন, দাম্পত্য কলহ ও পারিবারিক বিরোধের জেরে অভিমান করে ওই যুবক বিষপান করেছে। ঘটনার বিষয়ে থানায় কেউ কোনো ধরণের অভিযোগ করেনি।



বার্তা সূত্র