Skip to content

ত্রয়োদশ সংশোধনীর আলোকে তত্ত্বাবধায়ক সরকারের ফর্মুলা পেশ করা হবে: বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল

ত্রয়োদশ সংশোধনীর আলোকে তত্ত্বাবধায়ক সরকারের ফর্মুলা পেশ করা হবে: বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল

বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল-বিএনপি’র মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, তাদের দল সংবিধানের ত্রয়োদশ সংশোধনীর আলোকে, নির্বাচনকালীন নির্দলীয় তত্ত্বাবধায়ক সরকারের একটি ফর্মুলা পেশ করবে। মির্জা ফখরুল বলেন, “আপনারা সঠিক সময়ে তত্ত্বাবধায়ক সরকারের রূপরেখা জানতে পারবেন। আপনারা আরও জানতে পারবেন কখন আমরা একযোগে আন্দোলন শুরু করতে যাচ্ছি।”

মির্জা ফখরুল বৃহস্পতিবার (৬ অক্টোবর) ২০ দলীয় জোটের দুই শরিক দল বাংলাদেশ লেবার পার্টি ও ন্যাশনাল পিপলস পার্টির (এনপিপি) সঙ্গে আলোচনার পর সাংবাদিকদের এ কথা বলেন। জাতীয় ঐক্য গড়তে, বিএনপির দ্বিতীয় পর্বের সংলাপের অংশ হিসেবে মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর সকাল ১০টায় লেবার পার্টির সঙ্গে এবং বেলা ১১টায় এনপিপির সঙ্গে, বিএনপি চেয়ারপারসনের গুলশান কার্যালয়ে বৈঠক করেন।

বিএনপি মহাসচিব বলেন, “ত্রয়োদশ সংশোধনীর মাধ্যমে সংবিধানের ৫৮ (বি) (সি) (ডি) অনুচ্ছেদ অনুযায়ী তত্ত্বাবধায়ক সরকারের ফর্মুলা তৈরি করা হচ্ছে। এই রূপরেখাটি (১৩তম সংশোধনীর) সঙ্গে সামঞ্জস্য রেখে তৈরি করা হবে।”

অবাধ নির্বাচন তত্ত্বাবধান করতে, ১৯৯৪ সালে নির্দলীয় তত্ত্বাবধায়ক সরকার প্রতিষ্ঠার জন্য প্রচার চালায় আওয়ামী লীগ এবং ১৯৯৬ সালে আন্দোলনের মুখে বিএনপি তা মেনে নেয়।

ষষ্ঠ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে, একতরফা জয়লাভ করে বিএনপি নিরঙ্কুশ সংখ্যাগরিষ্ঠতা পায়। ১৯৯৬ সালের ২৭শে মার্চ সংবিধানের ১৩তম সংশোধনী পাস করে, নির্বাচনকালীন নির্দলীয় তত্ত্বাবধায়ক সরকার ব্যবস্থা প্রবর্তন করে। সুপ্রিম কোর্ট সংবিধানের ১৩ তম সংশোধনীকে বেআইনি বলে বাতিল করায়, ২০১১ সালে ১৫তম সংশোধনীর মাধ্যমে তত্ত্বাবধায়ক সরকার ব্যবস্থা বিলুপ্ত করা হয়। গত দুটি সাধারণ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয় আওয়ামী লীগ নেতৃত্বাধীন সরকারের অধীনে।

দুই রাজনৈতিক দলের সঙ্গে আলোচনার বিষয়ে ফখরুল জানান, তারা লেবার পার্টি ও এনপিপির সঙ্গে খসড়া দাবি ও আসন্ন যুগপৎ আন্দোলনে যে বিষয়গুলো তুলে ধরা হবে, তা নিয়ে আলোচনা করেছেন।

পর্যায়ক্রমে অন্যান্য দলের সঙ্গে আলোচনার পর,দাবি ও ইস্যু চূড়ান্ত করে যুগপৎ আন্দোলনে যাবেন বলে জানান বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

সূত্র: ভয়েজ অব আমেরিকা