Skip to content

ঢাকা টেস্টের দ্বিতীয় দিনে প্রথম ইনিংসে ভারতের সংগ্রহ ৩১৪ রান—সাকিব ও তাইজুলের দুর্দান্ত বোলিং

ঢাকা টেস্টের দ্বিতীয় দিনে প্রথম ইনিংসে ভারতের সংগ্রহ ৩১৪ রান—সাকিব ও তাইজুলের দুর্দান্ত বোলিং

ঢাকা টেস্টের দ্বিতীয় দিন বৃহস্পতিবার (২৩ ডিসেম্বর) বাংলাদেশের জন্য সকালটা ছিল আশাজাগানিয়া। তাইজুল ভারতের তিনটি উইকেট নিয়ে রান সংগ্রহে ভারতকে অনেকটাই চাপে রাখেন। কিন্তু পরের সেশনে ছিল বাংলাদেশের জন্য হতাশা। অবশ্য শেষ সেশনে আবার দারুণ বোলিংয়ে মিরপুর টেস্টে দ্বিতীয় দিন শেষে বাংলাদেশ নিজেদের লড়াইয়ে টিকে রেখেছে।

ম্যাচের প্রথম দিন শেষে (বুধবার ২২ ডিসেম্বর) ভারতের রান ছিল বিনা উইকেটে ১৯। কিন্তু বাংলাদেশের প্রথম ইনিংসের ২২৭ রানের জবাবে দ্বিতীয় দিনে তারা বেশ নড়বড়ে অবস্থায় শুরু করে।

বৃহস্পতিবার দ্বিতীয় দিনের প্রথম সেশনটা বাংলাদেশের জন্য দারুণ কাটে তাইজুলের বোলিংয়ে। ৬৭ রান যোগ করতে ৩ উইকেট হারায় ভারত। সবকটি উইকেট নেন তাইজুল। রাহুল ও গিল—দুজনই হন এলবিডব্লিউ। সামনে এসে খেলতে গিয়ে মিস করেন ভারত অধিনায়ক রাহুল। বাংলাদেশ এই উইকেট পায় রিভিউ নিয়ে। গতকাল একবার রিভিউ নিয়ে বেঁচে গিয়েছিলেন রাহুল, বাংলাদেশের একটি রিভিউও ব্যর্থ হয়েছিল তাঁর বিপক্ষে। দ্বিতীয় দিন মধ্যাহ্নভোজের আগে ভারত তিন উইকেট হারিয়ে ৮৬ রান করে। বিরাট কোহলি ও ঋষভ পন্ত যথাক্রমে ১৮ ও ১২ রানে নটআউট ছিলেন।

দ্বিতীয় সেশনের শুরুর দিকে তাসকিন আহমেদের গুডলেংথ থেকে লাফিয়ে ওঠা বলে খোঁচা দিয়ে উইকেটের পেছনে ক্যাচ দিয়ে ফেরেন বিরাট কোহলি। দেশের মাটিতে তাসকিনের এটিই প্রথম টেস্ট উইকেট। এরপর মারমুখী খেলা শুরু করেন ঋষভ পন্ত ও শ্রেয়াস আইয়ার।দ্বিতীয় সেশনে ভারত ২৫ ওভারে রান করে ১৪০।

চা-বিরতির পর ৮৮ রান যোগ করতে শেষ ৬ উইকেট হারিয়ে ৩১৪ রানে প্রথম ইনিংসে গুটিয়ে যায় ভারত। পন্ত ও শ্রেয়াস সেঞ্চুরির কাছে গিয়ে থামেন, পন্ত আউট হন ৯৩ রানে। আর শ্রেয়াস ৮৭ রানে।

সাকিব ৭৯ রানে নিয়েছেন ৪ উইকেট। আর তাইজুল ৪ উইকেট নিয়েছেন ৭৪ রানে।

৮৭ রানে পিছিয়ে থেকে দ্বিতীয় ইনিংস শুরু করা বাংলাদেশ দিনের বাকি সময় কাটিয়েছে নিরাপদেই। ৬ ওভার শেষে অবিচ্ছিন্ন আছে নাজমুল হোসেন ও জাকির হাসানের ওপেনিং জুটি। দ্বিতীয় ইনিংসে ভারতের সঙ্গে বাংলাদেশের ব্যবধান ৮০ রান।

দ্বিতীয় টেস্টে টসে জিতে বাংলাদেশ ব্যাট করার সিদ্ধান্ত নেয়। প্রথম ইনিংসে মুমিনুল হকের ৮৪ রানে সব উইকেট হারিয়ে বাংলাদেশ ২২৭ রান করে। ১২ ইনিংস পর মুমিনুলের এটি প্রথম ৫০ রান। উমেশ যাদব ও রবিচন্দ্রন অশ্বিন নেন চারটি করে উইকেট।

সূত্র: ভয়েজ অব আমেরিকা