Skip to content

“জীবন থাকতে দিদি এই রাজ্যে সিএএ ও এনআরসি লাগু হতে দেবেন না,” পুরুলিয়ায় সংখ্যালঘুদের আশ্বাস মারিয়া ফার্নান্ডেজের




সাথী দাস, পুরুলিয়া, ১৪ মার্চ: “জীবন থাকতে দিদি এই রাজ্যে সিএএ এবং এনআরসি লাগু হতে দেবেন না।” এই বক্তব্যের মধ্য দিয়েই পঞ্চায়েত নির্বাচনের আগে সংখ্যালঘু ভোট ব্যাঙ্ক অক্ষুণ্ন রাখতে চাইলেন তৃণমূল কংগ্রেস সংখ্যালঘু সেলের অন্যতম সংগঠক মারিয়া ফার্নান্ডেজ। আজ স্থানীয় রবীন্দ্র ভবনে পুরুলিয়া জেলা তৃণমূল কংগ্রেস সংখ্যালঘু সেলের উদ্যোগে একটি কর্মী সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। সেখানে সংখ্যালঘু ভোট ব্যাঙ্ক সুরক্ষিত রাখতে উদ্যোগী হন ওই তৃণমূল কংগ্রেস নেত্রী। তাঁর বক্তব্যে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ভুক্তদের রক্ষাকারী হিসেবে উঠে আসে।

তিনি বলেন, “নাগরিকত্ব সংশোধনী আইন ২০১৯ (সিএএ) ন্যাশনাল রেজিস্টার অফ সিটিজেন (এনআরসি) এই রাজ্যে লাগুর কোনও সুযোগ নেই। যতদিন পর্যন্ত মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বেঁচে থাকবেন ততদিন আপনারা নিশ্চিন্তে থাকুন।” এই প্রসঙ্গ তুলে আশঙ্কার কথা জিজ্ঞাসা করা হলে তিনি বিশদে কিছু বলতে চাননি। তিনি শুধু বলেন, “ওটা সরকার বলবে।” আজ পুরুলিয়ার রবীন্দ্র ভবনে আয়োজিত ওই সম্মেলনে তৃণমূল সংখ্যালঘু সেলের রাজ্য নেতা মুক্তার আলী, তৃণমূল রাজ্য ও জেলা নেতৃত্ব উপস্থিত ছিলেন।

তৃণমূল কংগ্রেস সংখ্যালঘু সেলের জেলা সভাপতি সেক রহিম আক্ষেপের সঙ্গে বলেন, “রাজ্য সংখ্যালঘু কমিশনের সভায় আমাদের চক্রান্ত করে ডাকা হয়নি। সম্প্রতি জেলার সার্কিট হাউসে অনুষ্ঠিত ওই গুরুত্বপূর্ণ বৈঠকে আমরা আমাদের কিছু চাওয়া পাওয়া সরাসরি জানাতে পারিনি। এটা জেলা সংখ্যালঘু ভবনে কিছু দুর্নীতিগ্রস্থ কর্মী আধিকারিকদের জন্য আমরা বঞ্চিত হলাম।”

এই বক্তব্যে সভার মধ্যেই জেলা ও রাজ্য নেতৃত্বের দৃষ্টি আকর্ষণ করেন সেক রহিম। বিষয়টি খোঁজ নিয়ে দেখার আশ্বাস দেন জেলা তৃণমূল কংগ্রেসের সভাপতি সৌমেন বেলথরিয়া।



বার্তা সূত্র