Skip to content

জমে উঠেছে ডেবরা গ্রামীণ উৎসব

পার্থ খাঁড়া, মেদিনীপুর, ৩০ মার্চ: ১০ দিনের ডেবরা গ্রামীণ উৎসব-২০২৩ শুরু হয়েছে। ডেবরা হরিমতি স্কুল ময়দানে২৭ শে মার্চ এর উদ্বোধন হয়।

আগামী ৪ এপ্রিল আদিবাসী সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান হবে। উৎসব কমিটির সভাপতি তথা সাংসদ প্রতিনিধি সীতেশ ধাড়া বলেন, ৪ তারিখ সারাদিন রাত ধরে চলবে আদিবাসীদের নানা সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান ও প্রতিযোগিতা। ডেবরা ব্লক ছাড়াও পাশাপাশি এলাকা থেকে আদিবাসীদের বিভিন্ন সংগঠন এই উৎসবে যোগ দেবেন। গতবছর এই অনুষ্ঠানে ভালো সাড়া পাওয়া গিয়েছিল। এই উৎসবকে কেন্দ্র করে আদিবাসীদের মধ্যে ব্যাপক উৎসাহ দেখা দেয়।

ঘাটালের সাংসদ দীপক অধিকারী তথা অভিনেতা দেবের উদ্যোগে শুরু হয়েছে এই ডেবরা গ্রামীণ উৎসব। ২৭ মার্চ উৎসবের উদ্বোধন করেন স্থানীয় বিধায়ক তথা প্রাক্তন মন্ত্রী হুমায়ুন কবীর। দেবকে প্রধান পৃষ্ঠপোষক করে তৈরি হয়েছে কমিটি। সাংসদ প্রতিনিধি অনুষ্ঠানের সভাপতি এবং স্থানীয় বিধায়ক উৎসবের চেয়ারম্যান। প্রধান উপদেষ্টা রয়েছেন ব্লক তৃণমূল সভাপতি তথা ডেবরা পঞ্চায়েত সমিতির কর্মাধ্যক্ষ বিবেকানন্দ মুখোপাধ্যায়।

২০১৭ সাল থেকে এই উৎসব চলে আসছে। এবছর তা সাত বছরে পড়ল। উৎসবকে কেন্দ্র করে বসেছে মেলাও। সেখানে প্রায় ৮০টি স্টল আছে। পাশাপাশি ছোটদের বিনোদনের জন্য নাগরদোলা সহ নানা উপকরণ রাখা হয়েছে। বিভিন্ন স্টলের মধ্যে নজর কেড়েছে সোনার দোকান, দু’চাকা, চারচাকা গাড়ির একাধিক স্টল। সেখানেও ভিড় জমছে বাসিন্দাদের। উৎসবকে কেন্দ্র করে প্রতিবছরের মতো এবারও অনুষ্ঠিত হয়েছে যোগাসন, অঙ্কন প্রতিযোগিতা। রক্তদান ও স্বাস্থ্য পরীক্ষা শিবিরেরও আয়োজন করা হয়েছে।

মেলাকে ঘিরে স্থানীয়দের মধ্যে ব্যাপক উৎসাহ-উদ্দীপনা দেখা দিয়েছে। বিশেষ করে প্রতিদিন নামী শিল্পীদের সঙ্গীতের আসর উৎসবের আকর্ষণকে আরও বাড়িয়ে দিয়েছে। সভাপতি বলেন, অনুষ্ঠান দেখতে ডেবরা ছাড়াও পাশাপাশি এলাকার বহু মানুষ আসছেন। ভিড় দেখা যাচ্ছে বিভিন্ন স্টলেও। উৎসব প্রাঙ্গণে যেমন দেখা মিলছে আশি বছরের বৃদ্ধের, তেমনই ছোটদের উপস্থিতিও চোখে পড়ার মতো। বিকেল হতে না হতেই সকলের গন্তব্য হয়ে উঠছে হরিমতি স্কুল প্রাঙ্গণ। বিকেল গড়িয়ে সন্ধ্যা থেকে রাত পর্যন্ত উৎসব প্রাঙ্গণে ভিড় উপচে পড়ছে। তাঁদের মধ্যে একটা বড় অংশ অবশ্য আসছেন প্রিয় শিল্পীদের গান শুনতে। সবমিলিয়ে কচিকাঁচা থেকে বয়স্কদের ভিড়ে মুখরিত হয়ে উঠছে উৎসব প্রাঙ্গণ।

বার্তা সূত্র