Skip to content

চট্টগ্রামের ৬ প্রবীণ ও ৮ তরুণ পেলেন গুণীজন সম্মাননা

চট্টগ্রামের ৬ প্রবীণ ও ৮ তরুণ পেলেন গুণীজন সম্মাননা

দুই দিনব্যাপী বর্ণাঢ্য আয়োজনের মধ্যদিয়ে পর্দা নামলো চট্টগ্রামের প্রথম লাইফস্টাইল অ্যান্ড বিজনেস ম্যাগাজিন ক্লিকের বিজয় উৎসব-২০২১।

উৎসবে বিভিন্ন পেশার ছয় প্রবীণ গুণীজনকে ‘চট্টলার বীর’ এবং সম্ভাবনাময় ৮ তরুণকে ‘তারুণ্যের কাণ্ডারি’ হিসেবে সম্মাননা দিয়েছে ক্লিক পরিবার। শুক্রবার রাতে নগরের জিইসি কনভেনশন সেন্টারে জমকালো অনুষ্ঠানের মাধ্যমে তাদের হাতে সম্মাননা স্মারক তুলে দেওয়া হয়।

সম্মাননাপ্রাপ্ত ৬ প্রবীণ হলেন- বীরমুক্তিযোদ্ধা ও মুক্তিযুদ্ধ গবেষক ডা. মাহফুজুর রহমান, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপাচার্য অধ্যাপক আনোয়ারুল আজিম আরিফ, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য ড. শিরীণ আখতার, চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের সাবেক প্রশাসক ও প্রবীণ রাজনীতিবিদ খোরশেদ আলম সুজন, একুশে পদকপ্রাপ্ত নাট্যশিল্পী আহমেদ ইকবাল হায়দার এবং ব্যবসায়ী ও শিল্পপতি তরফদার রুহুল আমীন। 

একই মঞ্চে সম্মাননাপ্রাপ্ত তারুণ্যের কাণ্ডারিরা হলেন- পিএইচপি শিপ ব্রেকিং ইয়ার্ডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক জহিরুল ইসলাম রিংকু, জুনিয়র চেম্বার চট্টগ্রাম কসমোপলিটনের প্রেসিডেন্ট টিপু সুলতান, মানবাধিকার কর্মী আমিনুল হক বাবু, প্রকৌশলী সাইদুজ্জামান কিরণ, সমকালের চট্টগ্রাম ব্যুরো প্রধান সাংবাদিক সারোয়ার সুমন, উদ্যোক্তা এ কে এম শহীদ চৌধুরী, সংগঠক জিনাত সোহানা চৌধুরী এবং উদ্যোক্তা শাহ এমরান মো. আলী চৌধুরী।

অনুষ্ঠানে অধ্যাপক আনোয়ারুল আজিম আরিফ বলেন, ‘ক্লিক ম্যাগা‌জিন চট্টগ্রাম সাজাতে তরুণ‌দের জাগানোর চেষ্টা চা‌লিয়ে যা‌চ্ছে। এজন্য ক্লিক পরিবারকে ধন্যবাদ জানাচ্ছি। সামাজিক মূল্যবোধ জাগ্রত করতে হলে একে অপরকে সম্মান জানাতে হবে।’ 

নাট্যজন ইকবাল হায়দার চৌধুরী বলেন, ‘সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি আমাদের অহংকার। সম্প্রীতির এই মূল্যবোধকে জাগ্রত করতে হবে।’

ক্লিক ম্যাগাজিনের সম্পাদক জালালউদ্দিন সাগর বলেন, ‘ক্লিক পরিবার সব সময় ব্যতিক্রমী কিছু করার চেষ্টা করে। আমাদের এই চট্টগ্রামকে ভালোবেসে যারা নিরলসভাবে কাজ করে নিজেদের অনন্য অবস্থানে নিয়ে গেছেন ও যাচ্ছেন মূলত তাদের সম্মান জানাতেই এই উৎসবের আয়োজন। ভবিষ্যতেও এমন আয়োজন অব্যাহত থাকবে।’

গত ৯ ডিসেম্বর রাতে ক্লিক বিজয় ফেস্টের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসক মমিনুর রহমান, রাঙামাটি জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (প্রশাসন ও অপরাধ) মাহমুদা বেগমসহ আমন্ত্রিত অতিথিরা। দুইদিনের এই উৎসবে অর্ধশত প্রতিষ্ঠান তাদের পণ্যসামগ্রী নিয়ে অংশ নেয়।



বার্তা সূত্র