Skip to content

‘গোটা ভারত আজ বিজেপির ATM’, শাহের কথায় তেলেবেগুনে জ্বলে সোচ্চার জেডি (এস): JD(S) Cong slam amit shah for remarks at karnataka Mandya rally

JD(S) Cong slam amit shah for remarks at karnataka Mandya rally

অমিত শাহকে তুলোধনা কংগ্রেস ও জেডি (এস)-এর। ‘রাজ্যবাসীকে বোকা বানানো সহজ নয়’, কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর শুক্রবারের মন্তব্যের কড়া সমালোচনা করে প্রতিক্রিয়া কর্নাটকের কংগ্রেস-জেডি (এস) জোটের। শুক্রবারই কর্নাটকের মান্ডিয়ায় একটি জনসভায় বক্তব্য রাখতে গিয়ে রাজ্যের বিরোধী জোটকে তুমুল আক্রমণ শানিয়েছিলেন শাহ। কংগ্রেস এবং জেডি (এস)-কে সাম্প্রদায়িক, বর্ণবিদ্বেষী এমনকী অপরাধী বলেও আক্রমণ করেছিলেন মোদীর প্রধান সেনাপতি।

২০২৩-এই দক্ষিণের রাজ্যে বিধানসভা নির্বাচন। ফের একবার দক্ষিণের গুরুত্বপূর্ণ এই রাজ্যের কর্তৃত্ব হাতে রাখতে মরিয়া গেরুয়া শিবির। ইতিমধ্যেই কর্নাটক বিজয়ের ‘গেমপ্ল্যান’ তৈরি করেছেন মোদী-শাহ-নাড্ডারা। তারই অঙ্গ হিসেবে শুক্রবার মান্ডিয়ার সভায় বোমা ফাটালেন শাহ। বিরোধী জোটের তুমুল সমালোচনায় শোরগোল ফেলেছেন গেরুয়া নেতা। এবার তারই পাল্টা হিসেবে একের পর এক টুইটে জেডি (এস) তুলোধনা করেছে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীকে।

দেবেগৌড়ার দলের তরফে বলা হয়েছে, ”অমিত শাহ তাঁর দল নিয়ে অতি আত্মবিশ্বাসী হয়ে পড়েছেন। রাজ্যের বিজেপি নেতারা এবং কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ মান্ডিয়ার এটিএম সম্পর্কে কথা বলেছেন… মিথ্যা বলতে তাঁদের কি লজ্জা পাওয়া উচিত নয়? শুধু কর্নাটক নয়। গোটা ভারত বিজেপির এটিএমে পরিণত হয়েছে। এটা কি মিথ্যা?”

উল্লেখ্য, মান্ডিয়ার সভায় অমিত শাহ একযোগে আক্রমণ করেছিলেন কংগ্রেস ও জেডি (এস)-কে। দুটি দলেই পরিবারতন্ত্রের প্রভাব নিয়ে সরব হয়েছিলন শাহ। একদিকে কংগ্রেসে যেমন গান্ধী পরিবারের প্রভাব রয়েছে, তেমনি জেডি (এস)-এও দেবেগৌড়ার পরিবারের প্রভাবের কথা তুলে ধরে আক্রমণ শানিয়েছিলেন শাহ। শুক্রবার বিজেপির অন্যতম এই শীর্ষ নেতা বলেছিলেন, ”কংগ্রেস ক্ষমতায় আসার পর এই রাজ্য দিল্লির এটিএম হয়ে উঠেছিল। আবার যখন জেডি (এস) এখানে ক্ষমতায় আসবে তখন এরাজ্য একটি পরিবারের এটিএম হয়ে যাবে।”

আরও পড়ুন- দূষণ গ্রাসে গোটা শহর, ওয়ার্ক ফ্রম হোম-সাইকেলে অফিস যাওয়ার পরামর্শ

অমিত শাহের এই মন্তব্যে তেলেবেগুনে জ্বলে উঠেছে জেডি (এস)। গেরুয়া দলকে পাল্টা আক্রমণ করে জেডি (এস)-এর অভিযোগ, ”এইচ ডি কুমারস্বামীর সরকারের পতনের পর কর্নাটকে ক্ষমতায় আসা বিজেপির একমাত্র লক্ষ্য ছিল কমিশন নেওয়া এবং বিধায়ক কেনা। “বিজেপি মানে এটিএমের একটি জাতীয় দল।”



বার্তা সূত্র