Skip to content

গারো সম্প্রদায়ের সঙ্গে বিএনপি নেতা প্রিন্সের শুভেচ্ছা বিনিময়

বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক সৈয়দ এমরান সালেহ প্রিন্স খ্রিস্টান ধমাবলম্বীদের ধর্মীয় উৎসব বড়দিন উপলক্ষে ময়মনসিংহের হালুয়াঘাট ও ধোবাউড়া উপজেলায় গাড়ো সম্প্রদায়ের মানুষের সাথে পাহাড়ী এলাকায় শুভেচ্ছা বিনিময় করেছেন।

রবিবার হালুয়াঘাটের জয়রামকুড়া, ধোবাউড়ার ভূইয়াপাড়ায় অনুষ্ঠিত শুভেচ্ছা বিনিময় অনুষ্ঠানে তিনি গারো সম্প্রদায়ের প্রতি বিএনপির চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া ও ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান রহমানের পক্ষ থেকে বড়দিনের শুভেচ্ছা জানান এবং তাদেরকে নিয়ে কেক কাটেন। পরে তিনি বড়দিন উপলক্ষে দুঃস্থ গারো মহিলাদের শীতবস্ত্র উপহার দেন।

এসময় এমরান সালেহ প্রিন্স বলেন, বিএনপি সকল ধর্ম বর্ণের দল। বিএনপি ‘ধর্ম যার যার,রাষ্ট্র সবার’ নীতি এবং সকল ধর্ম-সম্প্রদায়ের ধর্মীয় ও সাংস্কৃতিক স্বাধীনতা ও মূল্যবোধে বিশ্বাসী। বিএনপি সকল ধর্ম -বর্ণের দল।

তিনি বিএনপির ভিশন ২০৩০ এবং রাষ্ট্র মেরামতের রুপরেখার কথা উল্লেখ করে বলেন, আওয়ামী কর্তৃত্ববাদী দু:শাসনের অবসান ঘটিয়ে সকলের সম্মিলিত অন্তর্ভুক্তিমূলক রংধনু সমাজ তথা রেইনবো সোসাইটি বিনির্মাণে বিএনপি অঙ্গীকারবদ্ধ।

বিএনপির পতাকাতলে সকলকে ঐক্যবদ্ধ হয়ে স্বাধীনতার মূল লক্ষ্য গণতন্ত্র, সাম্য, মানবিক মর্যাদা, ন্যায় বিচার প্রতিষ্ঠায় সহযোগিতা করার আহ্বানও জানান তিনি।

এসময় ময়মনসিংহ উত্তর জেলা বিএনপির সদস্য আলহাজ্ব মফিজ উদ্দিন, অধ্যাপক মাজহারুল ইসলাম কাজল, হানিফ মোহাম্মদ শাকের উল্লাহ, আসলাম মিয়া বাবুল, আবু হাসনাত বদরুল কবির, আনিসুর রহমান মানিক, ফরহাদ রাব্বানী সুমন, আবুল হাশিম, নাদিম আহম্মদ, কাজী ফরিদ আহমেদ পলাশ, হোসনে আরা নীলু, মনোয়ারা বেগম, গারো আদিবাসী উচ্চারণ সাংমা, প্রবুদ চিশিম, সুমিত্রা মানকিন, সুগ্রিব চিরান, হারুন রাংদি, উত্তম মানদি, মনিরাজ মানদা উপস্থিত ছিলেন।

ঢাকাটাইমস/২৫ডিসেম্বর/জেবি/ইএস



বার্তা সূত্র