Skip to content

কোটালীপাড়ায় মৎস্যজীবীকে কুপিয়ে জখম

কোটালীপাড়ায় মৎস্যজীবীকে কুপিয়ে জখম

গোপালগঞ্জের কোটালীপাড়া উপজেলায় রিপন বিশ্বাস (৩২) নামে এক মৎস্যজীবীকে কুপিয়ে জখম করার অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় কোটালীপাড়া থানায় একটি মামলা দায়ের করা হয়। 

গত মঙ্গলবার (১৭ জানুয়ারি) উপজেলার কান্দি ইউনিয়নের কাচারীভিটা বাজারে এ ঘটনা ঘটে। মৎস্যজীবী রিপন শেখ বর্তমানে বরিশালের শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ছেন বলে জানিয়েছে তার পরিবার। 

রিপন শেখ কোটালীপাড়া উপজেলার সীমান্তবর্তী বরিশাল জেলার উজিরপুর উপজেলার শিবপুর গ্রামের ভাগ্য বিশ্বাসের ছেলে। 

জানা গেছে, ঘটনার আগের দিন (সোমবার) মৎস্যজীবী রিপন বিশ্বাস তার পুকুর থেকে মাছ ধরার জন্য কোটালীপাড়া উপজেলার কাচারীভিটা গ্রামের হামেদ হাওলারের ছেলে আমির আলী হাওলাদারের কাছ থেকে একটি জাল ভাড়া নিয়েছিলেন। ঘটনার দিন এই জাল ভাড়ার টাকা নিয়ে মৎস্যজীবী রিপন বিশ্বাসের সঙ্গে কাচারীভিটা বাজারে বসে আমির আলী হাওলাদারের কথা কাটাকাটি হয়। কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে আমির আলী ও তার লোকজন রিপন 

বিশ্বাসকে কুপিয়ে জখম করে। আহত রিপন বিশ্বাসকে কোটালীপাড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কেন্দ্রে ভর্তি করা হলে এখানে তার শারীরিক অবস্থার অবনতি ঘটে। এখানকার চিকিৎসকদের পরামর্শে তাকে বরিশাল শের-ই- বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে ভর্তি করা হয়। 

রিপন বিশ্বাস বর্তমানে আশংকাজনক অবস্থায় রয়েছে বলে জানিয়েছেন তার পিতা ভাগ্য বিশ্বাস। 

তিনি বলেন, একটি তুচ্ছ ঘটনা নিয়ে আমির আলী হাওলাদার ও তার লোকজন আমার ছেলেকে কুপিয়ে জখম করেছে। আমরা সংখ্যালঘু বিধায় এ ধরনের হামলার শিকার হয়েছি। আমি এ ঘটনার সুষ্ঠু বিচার চাই। 

এ বিষয়ে জানার জন্য আমির আলী হাওলাদারের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, জালের ভাড়া নিয়ে কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে রিপন বিশ্বাস আমার দাড়ি ধরে আমাকে থাপ্পড় মারে। তখন আমার লোকজন রিপন বিশ্বাসকে মারধর করে। তবে কুপিয়ে জখম করার ঘটনা ঘটেনি। 

কোটালীপাড়া থানার এসআই আমিনুল ইসলাম বলেন, এ ঘটনায় রিপন বিশ্বাসের পিতা ভাগ্য বিশ্বাস বাদী হয়ে একটি মামলা দায়ের করেছেন। মামলার আসামিদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে। 



বার্তা সূত্র