Skip to content

‘কান্নাকাটি করার অনেক সময় পাবেন’, হঠাৎ কেন এমন বললেন মোদী?

বাংলা হান্ট ডেস্কঃ চাঁদে পাড়ি দিয়েছে চন্দ্রযান, জি-২০ সম্মেলনে গোটা বিশ্বকে তাক লাগিয়ে দিয়েছে ভারত। চারিদিকে দেশের জয়জয়গান। এই আবহে এবার সংসদের পাঁচদিনের বিশেষ অধিবেশন (Parliament Special Session) নিয়ে মন্তব্য করলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী (PM Narendra Modi)। সোমবার সংসদে পৌঁছে মোদী বলেন, ‘ সংসদের এই অধিবেশন ছোট হলেও গুরুত্বপূর্ণ। কারণ একাধিক ঐতিহাসিক সিদ্ধান্ত নেওয়া হতে পারে এই অধিবেশনে।’

সোমবার থেকে শুরু হয়েছে সংসদের বিশেষ অধিবেশন। এদিন সংসদ ভবনে প্রবেশের আগে লোকসভার বাইরে দাঁড়িয়েই প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘আগামী মঙ্গলবার গণেশ চতুর্থীর দিনই নতুন সংসদ ভবনে প্রবেশ করবেন সাংসদরা।’ গণেশের আর এক নাম ‘বিঘ্ননাশক’ সেই উল্লেখ করে মোদী বলেন, ‘সব বাধা অতিক্রম করে ভারত সব স্বপ্ন এবং সংকল্প পূরণ করবে।’

২০৪৭ সালের মধ্যেই ভারতকে উন্নত দেশ হিসাবে গড়ে তোলার লক্ষ্যে কাজ হচ্ছে বলেও মন্তব্য করেন তিনি। সংসদের অধিবেশন প্রসঙ্গে তিনি বলেন, “এই বিশেষ অধিবেশন হয়তো দৈর্ঘ্যে অনেক ছোট। কিন্তু এর গুরুত্ব অপরিসীম। কারণ এই অধিবেশনেই বেশ কয়েকটি ঐতিহাসিক সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে। ”

আরও পড়ুন: ‘ধান্দাবাজ! টাকা কামানোর জন্য..শালবনিতে ঢপের চপ হবে’, সৌরভকে জোর আক্রমণ শুভেন্দুর

চন্দ্রযান ও জি২০ বৈঠকের সাফল্য, এই দুইয়ের কথা উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘দেশের মধ্যে একটা নতুন আত্মবিশ্বাস দেখা যাচ্ছে। জি২০ সম্মেলনে দেশের বৈচিত্র্যের উদযাপন হয়েছে।’ তার কথায়, চাঁদের শিবশক্তি পয়েন্ট ভারতকে নতুন উদ্দীপনা জুগিয়েছে।

আরও পড়ুন: ‘আজ আছি, কাল নেই, কে জানে ভবিষ্যতে..’, বার্সেলোনায় দাঁড়িয়ে হঠাৎ কী হল মমতার?

পাশাপাশি বিরোধীদের উদ্দেশ্যে বার্তা দিয়ে তিনি বলেন, “এই অধিবেশন খুবই ছোট। তাই নিজেদের পুরো সময় অধিবেশনের কাজেই দেওয়া উচিত সাংসদদের। কান্নাকাটি করার অনেক সময় পাবেন।” সংসদের বাদল অধিবেশনের অধিকাংশ সময় নানা ইস্যুতে সংসদের দুই কক্ষেই প্রতিবাদ জানিয়ে এসেছেন বিরোধীরা। সেই ইস্যুতেই বিরোধীদের একহাত নিলেন প্রধানমন্ত্রী।

বার্তা সূত্র