Skip to content

ওমিক্রন ধরা পড়েছে এমন দেশগুলো থেকে বাংলাদেশে প্রবেশের ক্ষেত্রে নতুন নিয়ম

ওমিক্রন ধরা পড়েছে এমন দেশগুলো থেকে বাংলাদেশে প্রবেশের ক্ষেত্রে নতুন নিয়ম

আফ্রিকা মহাদেশের দেশগুলোসহ ওমিক্রন ধরা পড়েছে এমন সব দেশ থেকে বাংলাদেশে আসার ক্ষেত্রে নতুন নিয়ম চালু করা হচ্ছে। এখন থেকে এসব দেশ থেকে আসার ৪৮ ঘণ্টা আগে করোনা ভাইরাসের নমুনা পরীক্ষার ‘নেগেটিভ’ সনদ সঙ্গে নিয়ে আসতে হবে। এ বিষয়ে আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর ও সংশ্লিষ্ট দপ্তরগুলোতে নির্দেশনা পাঠিয়েছে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর। বুধবার স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক এই তথ্য জানিয়ে বলেছেন, কোনো দেশে ওমিক্রন সংক্রমণ বেশি ছড়িয়ে পড়লে প্রয়োজনে নতুন সিদ্ধান্ত নেয়া হবে।

রাজধানীর বিসিপিএস মিলনায়তনে আয়োজিত এক অনুষ্ঠান শেষে মন্ত্রী সাংবাদিকদের বিভিন্ন প্রশ্নের জবাব দেন। এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, আফ্রিকা থেকে আসা যাত্রীদের বাধ্যতামূলকভাবে ১৪ দিনের কোয়ারেন্টিনের ব্যবস্থা করতে বলা হয়েছে। একইসঙ্গে তাদেরকে ৪৮ ঘণ্টা আগের করোনার আরটি পিসিআর টেস্ট করে ‘নেগেটিভ’ সনদ নিয়ে আসতে হবে।এছাড়া, অন্য দেশগুলো থেকে করোনা টেস্ট ছাড়া যদি কেউ আসে তাদেরকে অবশ্যই বাধ্যতামূলক প্রাতিষ্ঠানিককোয়ারেন্টিনে যেতে হবে। আমরা এসব সিদ্ধান্ত নিয়েছি। প্রবাসী বাংলাদেশিদের ক্ষেত্রেও এ নিয়ম প্রযোজ্য হবে।

বর্তমানে বিদেশ থেকে বাংলাদেশে আসতে যাত্রার আগের ৭২ ঘণ্টার মধ্যে করোনা পরীক্ষার সনদ নিয়ে আসার বাধ্যবাধকতা রয়েছে।আফ্রিকার দেশ এবং ওমিক্রন শনাক্ত হয়েছে এমন দেশ ছাড়া অন্য সব দেশের ক্ষেত্রে এই নিয়মই কার্যকর থাকবে।

বিদেশফেরত যাত্রীদের আগে হোটেল কোয়ারেন্টিন বাধ্যতামূলক থাকায় যেসব হোটেল ব্যবহার করা হয়েছিল করোনা কমে আসায় সেগুলো স্বাভাবিক কার্যক্রমে ফিরে গেছে। এখন প্রয়োজনে এসব হোটেল আবার প্রস্তুত করা হবে বলে মন্ত্রী জানিয়েছেন।

এই মুহূর্তে প্রবাসীদের বিদেশ থেকে দেশে না আসার আহ্বান জানিয়ে স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, বিশেষ করে আফ্রিকার দেশগুলোতে যারা আছেন, অনুরোধ, আপনারা স্ব-স্ব কর্মস্থলে অবস্থান করুন। কারণ একসঙ্গে যদি আফ্রিকা থেকেই ২০ থেকে ৩০ হাজার লোক দেশে চলে আসেন, আমরা কিন্তু সবাইকে কোয়ারেন্টিনের ব্যবস্থা করতে পারবো না। সব হোটেল নিলেও ১০ থেকে ১৫ হাজারের বেশি লোকের জায়গা দেয়া যাবে না।

মঙ্গলবার স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ে করোনা সংক্রান্ত সমন্বয় কমিটির বৈঠক শেষে স্বাস্থ্যমন্ত্রীজানিয়েছিলেন, গত এক মাসে আফ্রিকা থেকে ২৪০ জন বাংলাদেশি দেশে এসেছেন। তাদের খোঁজ পাওয়া যাচ্ছে না। মোবাইল ফোন বন্ধ করে রেখেছেন।এমন অবস্থায় আফ্রিকা ফেরত কিছু প্রবাসীকে চিহ্নিত করেছে স্থানীয় প্রশাসন।সতর্কতার অংশ হিসেবে ব্রাহ্মণবাড়িয়া ও সুনামগঞ্জে আফ্রিকা ফেরত কয়েকজন প্রবাসীর বাড়িতে লাল পতাকা লাগিয়ে দেয়া হয়েছে প্রশাসনের তরফে।

সূত্র: ভয়েজ অব আমেরিকা