আরও বড় ফাঁড়া নাইট রাইডার্সের কপালে, IPL-এর মাঝপথেই ভারত ছাড়তে পারেন সাকিব!

আরও বড় ফাঁড়া নাইট রাইডার্সের কপালে, IPL-এর মাঝপথেই ভারত ছাড়তে পারেন সাকিব!

হাইলাইটস

  • আইপিএলের মাঝপথেই ভারত ছাড়তে পারেন সাকিব আল হাসান।
  • সঙ্গে যাবেন মুস্তাফিজ়ুর রহমানও।
  • বাংলাদেশে নতুন কোভিড বিধি লাগু হয়েছে।

এইসময় ডিজিটাল ডেস্ক : নির্ধারিত সময়ের আগেই ভারত ছাড়তে পারেন বাংলাদেশের অলরাউন্ডার শাকিব-আল হাসান এবং জোরে বোলার মুস্তাফিজ়ুর রহমান। ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগের মাঝপথেই তাঁরা বাংলাদেশে পাড়ি দেবেন বলে শোনা যাচ্ছে। কিন্তু, কেন তাঁরা আচমকা এমন সিদ্ধান্ত নিতে বাধ্য হলেন? আসলে বাংলাদেশের পৃথকবাস নিয়মে কিছুটা পরিবর্তন করা হয়েছে। বাংলাদেশ স্বাস্থ্য মন্ত্রকের পক্ষ থেকে নয়া নিয়ম জারি করে একথা বলা হয়েছে। সেই কথাই এবার প্রকাশ্যে আনলেন বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের শীর্ষ কর্তা নিজ়ামুদ্দিন চৌধুরী।

কী বলা হয়েছে এই নয়া কোয়ারান্টাইন নিয়মে? নিজ়ামুদ্দিন চৌধুরী স্পষ্ট জানিয়ে দেন, গত ১ মে থেকে বাংলাদেশে এই নয়া কোয়ারান্টাইন নিয়ম চালু হয়ে গেছে। সেখানে স্পষ্ট বলা হয়েছে, ভারত এবং দক্ষিণ আফ্রিকা থেকে যদি কেউ ওই দেশে পা রাখে, তাহলে তাঁকে প্রথমে ১৪ দিনের কোয়ারান্টাইন পর্ব কাটাতে হবে। তারপরেই তাঁরা নিজেদের স্বাভাবিক কাজ করতে পারবেন। তবে ক্রিকেটারদের ক্ষেত্রে কিছু ছাড় দেওয়া হয়েছে। বাংলাদেশ স্বাস্থ্য মন্ত্রকের পক্ষ থেকে এই ব্যাপারে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড বিশেষ পারমিশন গ্রহণ করেছে।

ইতিপূর্বেও এই একই পরিস্থিতি তৈরি হয়েছিল। সেইসময় বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড দেশের ক্রিকেটার এবং বিদেশি কোচিং স্টাফদের জন্য কোয়ারান্টাইন পর্বের মেয়াদ কমিয়ে এনেছিল। কিন্তু, বর্তমানে করোনা ভাইরাসের এই দ্বিতীয় ঢেউয়ের ধাক্কায় এবার সেই সুযোগটুকুও আর দেওয়া হচ্ছে না। ভারত এবং দক্ষিণ আফ্রিকা থেকে আগত সদস্যদের জন্য কতটা সুযোগ দেওয়া হবে, তা নিয়ে যথেষ্ট সন্দেহ রয়েছে। তবে শ্রীলঙ্কা সফর সেরে যে সমস্ত ক্রিকেটাররা বাংলাদেশে ফিরছেন, তাঁদের জন্য অবশ্য এই নিয়ম লাগু হবে না।

সরকারের সিদ্ধান্ত অনুসারেই চলতে হবে আমাদের : বিসিবি প্রধান

বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের শীর্ষকর্তা নিজ়ামুদ্দিন চৌধুরী বললেন, “আমরা ওদের (সাকিব এবং মুস্তাফিজ়ুর) গোটা বিষয়টা জানিয়েছি। আমি ওদের কাছ থেকে আগামী ১৫ দিনের পরিকল্পনা জানতে চেয়েছি। পাশাপাশি আমি স্বাস্থ্য মন্ত্রকের কাছেও এই দুই ক্রিকেটারের কোয়ারান্টাইন নিয়ম সম্পর্কে আমরা জানতে চেয়েছি। সেটা ওদের অনুসরণ করতেই হবে।”

বর্তমানে কলকাতা নাইট রাইডার্স দলের হয়ে খেলছেন সাকিব, অন্যদিকে রাজস্থান রয়্যালস দলের উদীয়মান তারকা হলেন মুস্তাফিজ়ুর। প্রাথমিকভাবে ঠিক ছিল আগামী ১৯ মে বাংলাদেশে পা রাখবেন এই দুই ক্রিকেটার। তারপর তাঁদের তিনদিনের কোয়ারান্টাইন পর্ব কাটাতে হবে। এরপর আগামী ২৩ মে থেকে শ্রীলঙ্কার বিরুদ্ধে একদিনের সিরিজ় খেলবে বাংলাদেশ। তখন জাতীয় দলে তাঁরা যোগ দেবেন।

বিসিবি প্রধান নিজ়ামুদ্দিন চৌধুরী আরও যোগ করেন, “যদি স্বাস্থ্য মন্ত্রকের পক্ষ থেকে ঘোষণা করা হয় যে ওদের ৭ কিংবা ১৪ দিনের কোয়ারান্টাইন পর্ব কাটাতেই হবে, তাহলে আইপিএল টুর্নামেন্ট থেকে ওদের তাড়াতাড়ি ফিরে আসতে হবে। তবে তার আগে, এটা জানতে হবে যে ওদের জন্য কোন নিয়ম লাগু হবে। বাংলাদেশ সরকারের নিয়ম মানতে আমরা বদ্ধপরিকর। সরকারের নিয়মবিধি মেনেই আমাদের চলতে হবে।”

পাশাপাশি বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের চিন্তা বাড়াচ্ছেন জাতীয় ক্রিকেট দলের প্রোটিয়া কোচ রাসেল ডোমিংগো এবং ফিল্ডিং কোচ রিয়ান কুকের কোয়ারান্টাইন বিধি নিয়েও। আশা করা হচ্ছে, শ্রীলঙ্কা থেকে তাঁরা প্রথমে দক্ষিণ আফ্রিকা যাবেন, তারপর একদিনের সিরিজ়ের জন্য আবার জাতীয় ক্রিকেট দলে যোগ দেবেন।

সংবাদ সূত্র

Share on facebook
Share on twitter
Share on whatsapp
Share on email