আজ ২৩শে জানুয়ারি নেতাজি সুভাষচন্দ্র বসুর ১২৪ তম জন্মদিবস

আজ ২৩শে জানুয়ারি নেতাজি সুভাষচন্দ্র বসুর ১২৪ তম জন্মদিবস। তাঁর প্রতি বাঙালির যে উদ্বেলিত আবেগ রয়েছে তাকে মূলধন করে পশ্চিমবঙ্গে আসন্ন ভোটের আগে তৃনমূল আর বিজেপির দড়ি টানাটানি চলছে, কে নেতাজিকে বেশি শ্রদ্ধা দেখাতে পারে, বেশি আপন মনে করে। আজ দুপুরে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী নেতাজি স্মরণে একগুচ্ছ অনুষ্ঠানসূচি নিয়ে কলকাতায় পা রেখেছেন। তার আগে সকাল সকাল মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় উত্তর কলকাতার শ্যামবাজার মোড়ে নেতাজি মূর্তির পাদদেশ থেকে ধর্মতলায় নেতাজির আর এক মূর্তি পর্যন্ত ছ’কিলোমিটার রাস্তায় মিছিলে নেতৃত্ব দিয়েছেন।

পদযাত্রা শেষে বক্তৃতায় মমতা কেন্দ্রে নরেন্দ্র মোদীর বিজেপি সরকারকে ঠেস দিয়ে বলেন, নেতাজিকে ওঁরা কতটুকু চেনেন? তাঁকে নিয়ে এখন মাতামাতি শুরু করেছেন, সবটাই ভোটের হাতছানিতে। নেতাজির জন্মদিন আমরা জাতীয় ছুটির দিন হিসেবে ঘোষণা করা হোক, চেয়েছিলাম। কেন্দ্র ছুটি দিচ্ছে না। নেতাজির নামে কোনও স্মৃতিসৌধ তৈরি করছে না। অথচ আমরা রাজারহাটে আজাদ হিন্দ ফৌজের বীর সেনানীদের শ্রদ্ধা জানাতে একটি স্মারক তৈরি করছি। নেতাজির নামে একটি বিশ্ববিদ্যালয়ও হবে পশ্চিমবঙ্গে, যার পুরো খরচ দেবে রাজ্য সরকার। সবাইকে চমকে দিয়ে মুখ্যমন্ত্রী বলেছেন, দিল্লি কেন ভারতের একমাত্র রাজধানী হয়ে থাকবে? একসময় সারা ভারত শাসন হত কলকাতা থেকে‌। ইংরেজরা এই শহরে বসে সারা দেশ শাসন করতো। আমরা চাইছি, এই বিশাল দেশ ভারতের চার প্রান্তে চারটি রাজধানী শহর থাকুক। ঘুরিয়ে-ফিরিয়ে সেখান থেকে দেশ পরিচালনা করা হবে। তার একটি হবে অবশ্যই কলকাতা।

সেখান থেকে মুখ্যমন্ত্রী হঠাৎই এলগিন রোডে নেতাজি ভবনে চলে গিয়ে নেতাজির প্রতি শ্রদ্ধার্ঘ নিবেদন করে আসেন।

সূত্র: ভয়েজ অব আমেরিকা

Share on facebook
Share on twitter
Share on whatsapp
Share on email