Skip to content

‘অসহায়তার সুযোগ নিয়ে ধর্মান্তকরণ করছে ওরা’, খ্রিস্টান মিশনারিদের তোপ RSS প্রধানের

‘অসহায়তার সুযোগ নিয়ে ধর্মান্তকরণ করছে ওরা’, খ্রিস্টান মিশনারিদের তোপ RSS প্রধানের

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ফের ধর্মান্তকরণ নিয়ে সরাসরি খ্রিস্টান মিশনারিদের বিরুদ্ধে তোপ দাগলেন রাষ্ট্রীয় স্বয়ংসেবক সংঘের (Rashtriya Swayamsevak Sangh) প্রধান মোহন ভাগবত (Mohan Bhagwat)। রবিবার মধ্যপ্রদেশের (Madhya Pradesh) বুরহানপুরে একটি ধর্মীয় সভায় অংশ নেন আরএসএস (RSS) প্রধান। বলেন, “যখন অসহায় পরিস্থিতি মানুষের, তাঁদের মনে হয় সমাজ পাশে নেই, তখনই সুযোগ নেয় খ্রিস্টান মিশনারিরা। প্রথমে মানুষের সঙ্গে সম্পর্ক তৈরি করে পরে তাঁদের ধর্মান্তকরণ করে তারা।

আক্ষেপের সুরে ভাগবত বলেন, “আমরা আমাদের পাশে দাঁড়াই না। মানুষকে জিজ্ঞেস করি না, কেমন আছ? হাজার মাইল দূর থেকে আসা কিছু মিশনারি তাঁদের সঙ্গে বন্ধুত্ব পাতায়, একসঙ্গে থাকে, খাবার খায়, তাঁদের ভাষায় কথা বলে এবং তাঁদের ধর্মান্তকরণ করে।” সংঘপ্রধান আরও বলেন, গত একশো বছরে অসংখ্য বিদেশি এদেশে এসেছে। যদিও তাদের অভিসন্ধী ব্যর্থ হয়েছে। যেহেতু আমাদের পূর্বপ্রজন্মের সংস্কৃতির শিকড় গভীরে প্রথিত ছিল।” ভাগবতের উক্তি, “শিকড় উপড়ে ফেলার চেষ্টা চলছে। এই ছলনাকে বুঝতে হবে। বিশ্বাস মজবুত করতে হবে।”

[আরও পড়ুন: ২৪ বছর পর ফাটল কার্গিল যুদ্ধের বোমা! নিহত কিশোর, আহত আরও ২]

নিজের ভাষণে আরএসএস প্রধান বলেন, “কিছু প্রতারক ধর্ম নিয়ে প্রশ্ন তোলে, বিশ্বাসে দোলা দিতে চায়। আমাদের সমাজ আগে এমন লোকদের মুখোমুখি হয়নি। তাই অনেকে দোলাচালে ভোগে… আমাদের এই দুর্বলতা দূর করতে হবে।” তাঁর কথায়, “মানুষ যখন বদলে যায়, বিশ্বাস হারিয়ে ফেলে। তখন মনে করে সমাজ তাঁদের সঙ্গে নেই।” এই সুযোগ কাজে লাগায় মিশনারিরা।

[আরও পড়ুন: স্ট্যালিনের বিরুদ্ধে দুর্নীতি-তোপ, তামিলনাড়ুর বিজেপি সভাপতিকে মানহানির নোটিশ DMK’এর]

খ্রিস্টান মিশনারিদের প্রতি ভাগবতের কটাক্ষ, “আমাদের বিশ্বাস ছড়িয়ে দেওয়ার জন্য বিদেশে যাওয়ার দরকার নেই। ‘সনাতন ধর্ম’ এই জাতীয় অনুশীলনে বিশ্বাস করে না। তবে ভারতীয় ঐতিহ্য এবং বিশ্বাসের বিচ্যুতি যেন না হয়। বিকৃতি দূর করতে হবে। আমাদের ‘ধর্ম’-এর শিকড়কে শক্তিশালী করতে হবে।”

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ

নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে



বার্তা সূত্র