অযোধ্যায় ‘বিকল্প বাবরি মসজিদ’ নির্মাণ শুরু

ভারতের উত্তর প্রদেশের অযোধ্যায় ঐতিহাসিক বাবরি মসজিদের বিকল্প হিসেবে নতুন বরাদ্দকৃত জায়গায় মসজিদ স্থাপনা নির্মাণ প্রকল্পের কাজ শুরু হয়েছে। মঙ্গলবার দেশটির প্রজাতন্ত্র দিবসের দিন পতাকা উত্তোলন ও বৃক্ষরোপণ অভিযানের মধ্য দিয়ে এর আনুষ্ঠানিক ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করা হয়।

বার্তা সংস্থা আনাদোলুর প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ইন্দো-ইসলামিক কালচারাল ফাউন্ডেশন ট্রাস্ট পুরো প্রকল্পটির তদারকি করছে। প্রকল্পের কাজ শুরু হওয়ার প্রাক্কালে ভারতীয় মুসলমানদের মধ্যে মিশ্র আবেগের সৃষ্টি হয়।

ইন্দো-ইসলামিক কালচারাল ফাউন্ডেশন ট্রাস্টের সাধারণ সম্পাদক আস্থার হুসেন আনাদোলুকে বলেন, প্রজাতন্ত্র দিবসে আনুষ্ঠানিকভাবে নির্মাণ প্রক্রিয়া শুরু করা হলো। সাইটে মাটি পরীক্ষার ব্যবস্থাও করা হয়েছে। ট্রাস্টের প্রয়োজনীয় সকল ছাড়পত্র পাওয়ার পর পুরোদমে নির্মাণ কাজ শুরু হবে।

mosque constraction india1mosque constraction india1বৃক্ষরোপণ করছেন ট্রাস্টের সদস্যরা

নতুন এই প্রকল্পে বাবরি মসজিদের আদলে পুরনো কোনো কিছুই থাকবে না। সম্পূর্ণ নতুন আঙ্গিকে এটি নির্মাণ করা হবে। যেখানে থাকবে একটি হাসপাতাল, যাদুঘর, গ্রন্থাগার, কমিউনিটি কিচেন, ইন্দো-ইসলামিক সাংস্কৃতিক গবেষণা কেন্দ্র, একটি প্রকাশনা ঘর এবং একটি মসজিদ।

প্রকল্পটি ১৯৯২ সালে উগ্রবাদ হিন্দুদের বাবরি মসজিদ ভেঙে ফেলা সংক্রান্ত একটি মামলা নিষ্পত্তির অংশ। ওই সময় ভারতবর্ষের সবচেয়ে ভয়াবহ ধর্মীয় সহিংসতা হয়েছিল। যাতে ২ হাজারেরও বেশি মানুষ নিহত এবং অসংখ্য আহত হয়েছিলেন। পরে দীর্ঘ আইনি লড়াই শেষে ২০১৯ সালে এটির নিষ্পত্তি হয়।

babri mosque uniqebabri mosque uniqeনির্মাণ শুরু হওয়া নতুন প্রকল্পের দৃষ্টিনন্দন ডিজাইন

ক্ষমতাসীন ভারতীয় জনতা পার্টিসহ (বিজেপি) ডানপন্থী দলগুলো দাবি করে, মসজিদটির স্থলে হিন্দু দেবতা ভগবান রামের জন্ম হয়েছিল। আর সেই স্থানেই ১৬ শ শতকে মোগল সম্রাট বাবর বাবরি মসজিদ নির্মাণ করেছিলেন।

দীর্ঘ আইনি লড়াই শেষে ২০১৯ সালের নভেম্বরে ভারতের সুপ্রিম কোর্ট এই স্থানে রাম মন্দির নির্মাণের জন্য হিন্দু ট্রাস্টকে অনুমতি দেয়। আর দূরের একটি বিকল্প জায়গায় মসজিদ নির্মাণের জন্য সরকার নিয়ন্ত্রিত সুন্নি কেন্দ্রীয় ওয়াকফ বোর্ডকে জমি দেন আদালত। বাবরি মসজিদ থেকে এটি ২৫ কিলোমিটার (১৫ মাইল) দূরে।

babri mosque indiababri mosque indiaপুরাতন বাবরি মসজিদ, এই স্থানে এখন রাম মন্দির নির্মাণ হচ্ছে

এর পরই বোর্ড মসজিদটির নির্মাণ কাজ সম্পাদন করতে ইন্দো-ইসলামিক কালচারাল ফাউন্ডেশনকে (আইআইসিএফ) দায়িত্ব দেয়।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।